মালামাল ক্রোক করতে নূর হোসেনের বাড়িতে পুলিশ

fiwele
সমাজের কথা ডেস্ক॥ আদালতের নির্দেশে অস্থাবর সম্পদ ক্রোক করতে সাত খুনের মামলার প্রধান আসামি পলাতক নূর হোসেনের বাড়িতে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ।
বৃহস্পতিবার বেলা ৩টায় নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নূর হোসেনের শিমরাইলের টেকপাড়ার বাড়িতে যায় পুলিশ।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি আলাউদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, আদালতের নির্দেশে অস্থাবর সম্পদ ক্রোক করতে অভিযান চালাচ্ছেন তারা।
বাড়ির সামনে কয়েকটি ট্রাক রাখা হয়েছে। ক্রোক করা মামলাল ওই ট্রাকে নিয়ে আসা হবে বলে পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।
ম্যাজিস্ট্রেট আবুল কাশেমের নেতৃত্বে এই ক্রোক অভিযানের শুরুতে দুটি এলসিডি টেলিভিশন, দুই সেট সোফা, দুটি ম্যাকাও পাখি বের করে আনতে দেখা যায়।
বাড়ির ভেতরে গুলিভরা একটি রিভলবারও পেয়েছে পুলিশ।
পুলিশের আবেদনে বুধবার আদালত পলাতক নূর হোসেনের অস্থাবর সম্পদ ক্রোকের আদেশ দেয়।
কাউন্সিলর নজরুল ইসলামসহ সাতজনকে অপহরণ ও হত্যাকাণ্ডের পর গত ৪ মে নূর হোসেনের বাড়িতে অভিযান চালিয়েছিল পুলিশ। সেদিন বাড়ি থেকে ১২ জনকে আটক এবং একটি মাইক্রোবাস জব্দ করা হয়েছিল।
এরপর উচ্ছেদ করা হয় শীতলক্ষ্যা নদী তীরে নূর হোসেন ও তার সহযোগীদের অবৈধ দখল। তার দোকান থেকে উদ্ধার করা হয় বিপুল পরিমাণ মাদক। নূর হোসেন ও তার সহযোগীদের ১১টি অস্ত্রের লাইসেন্সও বাতিল করা হয়।
নূর হোসেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ছিলেন। হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগ ওঠার পর তাকে অব্যাহতি দেয়া হয়।
গত ২৭ এপ্রিল সাত জনকে অপহরণের পরপরই ক্ষুব্ধ নজরুল সমর্থকরা নূর হোসেনের কার্যালয় পুড়িয়ে দেয়।
নূর হোসেন ভারতে পালিয়ে গেছেন বলে র‌্যাবের ধারণা।

শেয়ার