আজ থেকে যশোরের ৩ উপজেলার শুরু হচ্ছে ভোটার তালিকার হালনাগাদ করার কাজ

voter talika
এম এ রাজা ॥
আজ থেকে তিন পর্বে সারা দেশের সাথে যশোরেও শুরু হচ্ছে ভোটার তালিকার হালনাগাদের কার্যক্রম। প্রথম ধাপে জেলার অভয়নগর, শার্শা ও বাঘারপাড়ার উপজেলায় হালনাগাদের কাজ করা হবে। ১৫ থেকে ২৪ মে পর্যন্ত বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহের পর ২৬ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত হবে নিবন্ধন কেন্দ্রে ছবি তোলার কাজ। এ জন্য অভয়নগরে ৯৮ জন তথ্য সংগ্রহকারী, ২২ জন সুপার ভাইজার, শার্শায় ১৪৫ জন তথ্য সংগ্রহ কারী, ৩০ জন সুপারভাইজার এবং বাঘারপাড়ায় ৯৫ তথ্য সংগ্রহকারী ও ২১ জন সুপার ভাইজার নিয়োগ দেয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য উপজেলা হালনাগাদ কাজও শুরু হবে। বুধবার বিকালে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম উপলক্ষে গঠিত “ যশোর জেলা সমন্বয় কমিটি”র এক সভায় এই তথ্য জানানো হয়। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোস্তাফিজুর রহমান। উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র মারুফুল ইসলাম, জেলা সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা শিবপদ মন্ডল, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা তারেক আহমেদ, পুলিশ পরিদর্শক একেএম ফারুক হোসেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন যশোরের উপ-পরিচালক নাসির উদ্দিন, জাগরনী চক্র ফাউন্ডেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা হাসিব নেওয়াজ, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের জেলা সাধারন সম্পাদক তন্দ্রা ভট্টাচার্য ও জেলা নির্বাচন কার্যালয়ের উচ্চমান সহকারি ওয়াহিদ মুরাদ প্রমুখ। সভায় আরো জানানো হয়, ২০১৫ সালের ১ জানুয়ারি পর্যন্ত যাদের বয়স ১৮ বছর পূর্ণ হবে তাদের তথ্য বাড়ি বাড়ি গিয়ে সংগ্রহ করা হবে। এরপর ভোটার রেজিস্ট্রেশন কেন্দ্রে গিয়ে নতুনদের ছবি ও আঙ্গুলের ছাপ দিতে হবে। এর আগে যারা ভোটার হতে পারেননি তারাও ভোটার হতে পারবেন। ১৮ বছরের কম বয়সে ভোটার হওয়া, একাধিক মিথ্যা তথ্য বা ভুল ঠিকানা দিয়ে ভোটার হওয়া দন্ডণীয় অপরাধ। কেউ জাতীয় পরিচয়পত্র হারিয়ে ফেললে পুনরায় ভোটার হওয়ার প্রয়োজন নেই। এ বিষয়ে থানায় জিডি করে উপজেলা বা থানা নির্বাচন অফিসে আবেদন করলে তা পুনরায় দেয়া হবে। এছাড়া কারো তথ্যে ভুল থাকলে নির্ধারিত ফরমে আবেদন করলে তা সংশোধন করা হবে।
সভায় আরোও জানানো হয় দ্বিতীয় ধাপে ১৫ জুন থেকে যশোরের কেশবপুর, ঝিকরগাছা ও চৌগাছা এবং তৃতীয় ধাপে ১ সেপ্টেম্বর থেকে সদর ও মনিরামপুর উপজেলার ভোটার তালিকার হালনাগাদ কাজ করা হবে।

শেয়ার