“মাতাল সালমান দৌড়ে পালান”

Salman
সমাজের কথা ডেস্ক॥ ২০০২ সালের গাড়ি চাপা দেওয়ার মামলায় আদালতে হাজিরা দিয়েছেন হিন্দি সিনেমার অভিনেতা সালমান খান। মঙ্গলবার মুম্বাইয়ের এক আদালতে দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে যাওয়া একজনের সাক্ষ্যও গৃহীত হয়েছে।

ভারতীয় বার্তা সংস্থা এনডিটিভি জানিয়েছে, বেঁচে যাওয়া ঐ ব্যক্তি সাক্ষ্যে বলেন, গাড়ি চাপা দেওয়ার পর চালকের সিট থেকে নেমে আসেন সালমান। সে সময় তিনি এতটাই মাতাল ছিলেন যে বের হওয়ার সময় পড়ে যান। তারপর দৌড়ে পালিয়ে যান।

একদশকেরও বেশি সময় ধরে চলে আসা এই মামলার শুরুর দিকে সালমানের বিরূদ্ধে অভিযোগ ছিল ‘দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু’র। তবে নতুন করে শুরু হওয়া বিচারে তার বিরূদ্ধে অভিযোগ ‘দণ্ডনীয় মৃত্যুর’(কালপাবল হোমিসাইড)। মুম্বাইয়ে চলতে থাকা শুনানিতে সালমানের পক্ষের আইনজীবিরা এ পর্যন্ত এটাই প্রমান করার চেষ্টা করে আসছেন যে দুর্ঘটনার সময় গাড়ির চালকের আসনে ছিলেন না তিনি।

২০০২ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর রাত দুইটায় মুম্বাইয়ের ব্যান্ড্রা এলাকায় এক ফুটপাথে ঘুমন্ত ছিন্নমূল মানুষের উপর টয়োটা ল্যান্ডক্রুজারটি তুলে দেন সালমান। ঘটনায় নিহত হয়েছিলেন একজন। আহত হন আরও চারজন।

মামলায় তার বিরূদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে দশবছরের কারাদণ্ড হতে পারে সালমানের।

শেয়ার