বিশিষ্ট ব্যবসায়ী তুহিন বিশ্বাস আটক না হলেও সংবাদপত্রে গ্রেফতার ও অস্ত্র উদ্ধার রিপোর্ট ॥ ক্ষুব্ধ এলাকাবাসীর ডিসি এসপির নিকট স্মারকলিপি

sharoklipi
নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরের দত্তপাড়া বাজারের ব্যবসায়ী জেলা আমদাবাদ গ্রামের সমাজসেবক তুহিন বিশ্বাসু পুলিশ গ্রেফতার না করলেও তাকে আটক এবং অস্ত্র উদ্ধার নিয়ে দুটি সংবাদপত্রে রিপোর্ট প্রকাশ হওয়ায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। গ্রামের কাগজ ও লোকসমাজে এ ধরণের আজগুবি খবরে বিস্ময় প্রকাশ করে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে এলাকাবাসী। স্মারকলিপিতে বলা হয় ৪ মে ওই দু’টি পত্রিকায় দেয়াপাড়ার সাজ্জাদ অস্ত্র, গুলি ও রামদাসহ গ্রেফতার হন মর্মে সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদে উল্লেখ করা হয় যে, পরে সাজ্জাদের স্বীকারোক্তিমূলক আমদাবাদ গ্রামের মৃত রকিব বিশ্বাসের ছেলে তুহিন বিশ্বাসের বাড়িতে তল্লাশি করে একটি পিস্তল, একটি ম্যাগজিন, ২ রাউন্ড গুলি ও একটি ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। কিন্তু তুহিন বিশ্বাসকে গ্রেফতার করা হয়নি। রিপোর্টটি সম্পূর্ণ মনগড়া, ভিত্তিহীন ও এলাকার কিছু কুচক্রি মহলের কাল্পনিক কাহিনী মাত্র।
এলাকাবাসীর বক্তব্যে প্রকৃতপক্ষে তুহিন বিশ্বাস আওয়ামী লীগ করেন। অপর পক্ষে দেয়াড়ার নুরুল ইসলাম গং বিএনপি রাজনীতির সাথে যুক্ত। নুরুল ইসলাম গং এলাকায় খুন, জখম, চাঁদাবাজি, রাহাজানি, ছিনতাই, চুরি, জবর দখলসহ বিভিন্ন অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকে। তুহিন বিশ্বাস জনসাধারণের নিয়ে এ কাজে বাধা দিলে শত্রুতার সৃষ্টি হয়। দীর্ঘদিন যাবৎ নুরুল ইসলাম গং এর সাথে তুহিন বিশ্বাসের মত পার্থক্য ও শত্রুতা চলছে। একারণে তুহিন বিশ্বাসকে মান সম্মান ুণœ বা হেয় করবার জন্য স্থানীয় দৈনিক লোকসমাজ ও দৈনিক গ্রামের কাগজে মিথ্যা, ভিত্তিহীন সংবাদ প্রকাশ করায়। স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় মসজিদ কমিটির সভাপতি মতিয়ার রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাদৎ হোসেন, আব্দুস সাত্তার, প্রভাষক লিয়াকত আলী, প্রধান শিক্ষক আব্দুল জব্বার, বীর মুক্তিযোদ্ধা কাশেম প্রমুখ।

শেয়ার