খুলনায় সন্ত্রাসী হামলায় সমকালের ব্যুরো প্রধান ও চ্যানেল ২৪ এর ক্যামেরাপার্সন গুরুতর আহত

ch 24
খুলনা ব্যুরো॥ খুলনায় দায়িত্ব পালনকালে সন্ত্রাসীদের হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন সমকাল ও চ্যানেল ২৪ এর খুলনা ব্যুরো প্রধান মামুন রেজা ও ক্যামেরাপার্সন খায়রুল আলম। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় সন্ত্রাসীরা চ্যানেল ২৪ এর ক্যামেরা ভেঙ্গে কয়েক টুকরো করে ফেলে। ভাংচুর করে ট্রাইপট, মাইক্রোফোনসহ আশপাশের দোকানপাট ও ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান।
গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে শহরতলীর জিরো পয়েন্টে এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। হামলাকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে সাংবাদিকরা। আজ বুধবার বেলা ১১টায় নগরীর পিকচার প্যালেস মোড়ে মানববন্ধনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে।
এদিকে একই সময়ে সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত হয়েছেন ২৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সরদার আবদুল হালিম ও যুবলীগ নেতা এনামুল হক। তাদেরও খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
আহত সাংবাদিক মামুন রেজা জানান, মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে তিনি ও তাঁর ক্যামেরাপার্সন খায়রুল আলম যাত্রীবাহী পরিবহনের অনিয়ম ও ঝুঁকি বিষয়ক একটি প্রতিবেদন তৈরীর উদ্দেশ্যে শহরতলীর জিরো পয়েন্ট এলাকায় যান। ক্যামেরাপার্সন খায়রুল যাত্রীবাহি বাসে অতিরিক্ত যাত্রীবহন, ছাদে লোক উঠানোসহ বিভিন্ন দৃশ্য ক্যামেরায় ধারণ করতে থাকেন। এ সময়ে তাদের কর্মস্থলের অদূরে একই এলাকার জমি দখল, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ক হাফিজুর রহমান হাফিজের লোকজন প্রতিপ নাজমুল ইসলামের সমর্থকদের উপর সশস্ত্র হামলা চালায়। তারা আশপাশের দোকানপাট ভাঙচুর ও পথচারীদের মারধর করে। ক্যামেরাপার্সন খায়রুল আলম আকষ্মিক এ ঘটনা দেখে ক্যামেরা তাক করতেই হাফিজের শ্যালক ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহবায়ক তৈয়েবুর রহমানের নেতৃত্বে হাফিজের লোকজন খায়রুলের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। তারা লাঠি, রড, ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে ক্যামেরা ছিনিয়ে নিয়ে ভেঙ্গে ফেলে। মামুন রেজা সন্ত্রাসীদের নিজের পরিচয় দিয়ে তাদের ছবি তোলা হয়নি দাবি করে মারধর না করার অনুরোধ জানালে সন্ত্রাসীরা তাকেও বেধড়ক মারপিট করে।
সন্ত্রাসী হামলায় খায়রুল আলমের মাথা ফেটে যায় ও পা ভেঙে গেছে। মামুন রেজার পিঠ, পাসহ শরীরের বিভিন্নস্থানে গুরুতর জখম হয়েছেন। তবে এ ঘটনার মাত্র ২০ গজ দূরত্বে পুলিশের লোকজন থাকলেও তারা দর্শকের ভূমিকা পালন করে।
এ ঘটনার পর জিরোপয়েন্টে তাৎণিক প্রতিবাদ সভায় সাংবাদিক নেতারা আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্য চিহ্নিত ভূমিদস্যুদের গ্রেপ্তার ও ব্যবস্থা গ্রহণের আল্টিমেটাম দিয়েছেন। সমাবেশে বক্তব্য দেন খুলনা প্রেস কাবের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাহিদ হোসেন, সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম কাজল, সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম সোহাগ, তরিকুল ইসলাম, কনক রহমান, রাশিদুল ইসলাম, এহতেশামুল হক শাওন, আবু হেনা মোস্তফা জামাল পপলু, কৌশিক দে, মিজানুর রহমান মিল্টন, সুনীল দাস, সোহেল মাহমুদ, আবুল হাসান হিমালয়, নেয়ামুল ইসলাম কচি, রকিকুল ইসলাম মতি, শাহজালাল মোল্লা মিলন প্রমুখ।
এদিকে, এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন, বিএফইউজে’র যুগ্মমহাসচিব ফারাজী আহমেদ সাঈদ বুলবুল, যশোর সাংবাদিক ইউনিয়ন জেইউজে’র সভাপতি সাজ্জাদ গনি খাঁন রিমন এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শাপলা রহমান।
অপরদিকে পৃথক পৃথক বিবৃতিতে খুলনা প্রেসকাব, খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়ন (কেইউজে), খুলনা মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন (এমইউজে), ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, ভিডিও ক্যামেরাম্যান জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছে।

শেয়ার