কালিগঞ্জে বৃদ্ধের হাত-পা ভেঙে গুড়িয়ে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা

kaligonj
কালিগঞ্জ (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি॥ কালিগঞ্জে সুকুমার ঘোষ (৭০) নামের এক বৃদ্ধের দু’পা ও হাত ভেঙে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। তিনি উপজেলার তারালী ইউনিয়নের জাফরপুর গ্রামের মৃত সুবির কৃষ্ণ ঘোষের ছেলে। এব্যাপারে কালিগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
আহতের পরিবারের সদস্য ও থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার রাত সাড়ে ৭ টার দিকে জাফরপুর গ্রামের মৃত আরশাদ আলীর ছেলে আমিনুর রহমান সরদারের ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেল যোগে তারালী হতে বিশ্বনাথপুর মন্ডলপাড়া পূজামন্ডপে যাচ্ছিলেন সুকুমার ঘোষ। তিনি পূজামন্ডপের পার্শ্ববর্তী এলাকায় পৌছানোর পর পূর্ব থেকে সেখানে অবস্থানকারী তেঁতুলিয়া গ্রামের গোবিন্দ ঘোষের ছেলে শেখর ঘোষ ওরফে বপ্পা (২৭), একই গ্রামের শহীদ কারিকরের ছেলে মনি কারিকর (৩০), মৃত মাধব অধিকারীর ছেলে গৌর অধিকারী (৩০) ও মৃত সুধান্য ঘোষের ছেলে গোবিন্দ ঘোষ (৫০)সহ অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জন সন্ত্রাসী তার মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে। এসময় সন্ত্রাসীরা তাকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে তার দু’পা ও বাম হাতের কয়েকস্থানে ভেঙে গুড়িয়ে দেয়। পরবর্তীতে উপস্থিত জনতা গুরুতর আহত অবস্থায় সুকুমার ঘোষকে উদ্ধার করে মাইক্রোবাস যোগে কালিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। তবে তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় রাত ১০ টার দিকে তাকে এ্যাম্বুলেন্সযোগে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে বৃদ্ধের ছেলে সঞ্জয় ঘোষ বাদী হয়ে গতকাল কালিগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

শেয়ার