বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগ ফাইনালে উত্তর-দক্ষিণের লড়াই

bcl
সমাজের কথা ডেস্ক॥
উদ্বোধনী আসরে ওয়ালটন মধ্যাঞ্চলের কাছে ৩১ রানে হেরে শিরোপা হাতছাড়া করেছিল বিসিবি উত্তরাঞ্চল। এবার তাইজুল ইসলামের বোলিং নৈপুণ্যে ৫১ রানে মাহমুদউল্লাহর দলকে হারিয়ে শোধ নিল তারা। আর এই জয়ে টানা ফাইনালে উঠল নাসির হোসেনের দল। বর্তমান চ্যাম্পিয়নকে হারিয়ে ৮ মে শিরোপার লড়াইয়ে দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা নিশ্চিত করল উত্তরাঞ্চল।
প্রথম ইনিংসের রানের পুঁজিকেই দলের জন্য যথেষ্ট করে রাখলেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম। এমনকি দ্বিতীয় ইনিংসে দলীয় শতক পেরুতে না পারলেও এই বোলার দলকে জেতাতে বিশাল ভূমিকা রাখলেন।

জয়ের জন্য একদিন হাতে রেখে ২৬৭ রানের লক্ষ্য পেয়েছিল মধ্যাঞ্চল। প্রথম দিন আব্দুল মজিদকে খালি হাতে ফিরিয়ে সতর্কতা দিয়েই রেখেছিলেন তাইজুল। দ্বিতীয় দিনও কয়েক ওভার পেরুতে আরেক ওপেনার রনি তালুকদারকে ১৭ রানে সাজঘরে পাঠান এই বাঁহাতি স্পিনার।

তবে শামসুর রহমান ও ইলিয়াস সানির জুটি খানিকটা ভুগিয়েছিল উত্তরাঞ্চলের বোলারদের। অবশেষে শামসুরকে (৩৬) নিজের তৃতীয় শিকার বানিয়ে ৯৩ রানের এই জুটি ভাঙেন তাইজুল। দৃঢ় ব্যাটিংয়ে দলকে এগিয়ে নিতে থাকা ইলিয়াস সানি ৬০ রানে ফিরতি ক্যাচ তুলে দিলেন সানজামুল ইসলামকে।

এরপর শুভাশিষ রায়ের পেসে বিধ্বস্ত মধ্যাঞ্চল। নুরুল হাসান (২৮) খানিকটা প্রতিরোধ গড়ে এই পেসারের শিকার হন। আর শাহাদাত হোসেনকে বোল্ড করে দলের জয়ও নিশ্চিত করেন শুভাশিষ।

আগের ইনিংসে ছয় উইকেট পাওয়া তাইজুল শেষ ইনিংসে ২২ ওভারে ৮৯ রান দিয়ে নিয়েছেন আবারও পাঁচ উইকেট। এছাড়া শুভাশিষ তিনটি ও সানজামুল দুটি উইকেট পান।

৫৫ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে উঠে গেল উত্তরাঞ্চল। আর ৩০ পয়েন্ট শীর্ষে থেকে শেষ রাউন্ড খেলতে নামা মধ্যাঞ্চল ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে তিনে নেমে গেছে। আগের দিন ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চলকে ছয় উইকেট হারিয়ে ৪১ পয়েন্ট নিয়ে ফাইনালে উঠল প্রাইম ব্যাংক দক্ষিণাঞ্চল। ১৮ পয়েন্ট নিয়ে চার দলের সবার শেষ দল পূর্বাঞ্চল।

শেয়ার