প্রসূতির শরীরে অস্ত্রোপচারে অবহেলা॥ অভয়নগরের ডাক্তার গফ্ফারের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা

doctor
নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ গর্ভবতী মায়ের শরীরে অস্ত্রোপচারে অবহেলার অভিযোগ তুলে ডাক্তারের বিরুদ্ধে যশোরের একটি আদালতে মামলা করা হয়েছে। সদর উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামের রমজান আলীর মেয়ে রেহেনা বেগম মামলাটি দায়ের করেন। মামলার আসামি ডাক্তার আব্দুল গফ্ফার অভয়নগরের নওয়াপাড়া ডক্টরর্স কিকিনের মালিক ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার।
অভিযোগে বাদি দাবি করেছেন, রিপা বেগমকে সন্তান প্রসবের জন্য নওয়াপাড়া ডক্টরর্স কিনিকে ১১ এপ্রিল ভর্তি করা হয়। সেখানে ডাক্তার আব্দুল গফ্ফার জানান সন্তানটি স্বাভাবিক অবস্থায় নেই। দ্রুত সিজার করাতে হবে। এতে খরচ হবে ৩০ হাজার টাকা। কিন্তু এত টাকা দিতে অপরাগকতা প্রকাশ করেন রোগীর স্বজনরা। এক পর্যায়ে ১৫ হাজার টাকায় চুক্তি করে ওইদিন রাত সাড়ে ১০ টার দিকে তার শরীরে অস্ত্রোপচার করেন ডা. গফ্ফার। পরে রোগী সুস্থ্য না হলেও তাকে জোর করে ১৫ এপ্রিল বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়া হয়। কিন্তু ক্রমাগতভাবে বেশি অসুস্থ্য হতে থাকে রিপা। বিষয়টি ফের ডাক্তার আব্দুল গফ্ফারকে জানানো হলে তাদের যশোর একতা হাসপাতালে রোগী ভর্তির পরামর্শ দেয়া হয়। রোগীর পেটের মধ্যে গজ ব্যান্ডেজ থাকার বিষয়টি ধরা একতা হাসপাতালে ভর্তির পর। ডাক্তারদের অভিমত অস্ত্রোপাচারে তাচ্ছিল্য ও অবহেলার কারণে পেটে গজ ব্যান্ডেজ থেকে গেছে। রোগী শংকামুক্ত না। এ ঘটনায় ুব্ধ হয়ে রেহেনা বেগম নামে রোগীর এক স্বজন সোমবার যশোর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে অভিযোগ মামলা করেন। বিচারক অভিযোগটি এজাহার হিসেবে রেকর্ড ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে অভয়নগর থানার ওসিকে দ্রুত আদালতকে অবহিত করার আদেশ দিয়েছেন।

শেয়ার