কলকাতার অবাক করা হার

kkr
সমাজের কথা ডেস্ক॥ রাজস্থান রয়্যালসের কাছে ১৭১ রানের লক্ষ্যে নেমে শুরুটা ধুমধাড়াক্কা ব্যাটিং দেখালেন রবিন উথাপ্পা ও গৌতম গম্ভীর। কিন্তু উইকেটও হারালেন ধুমধাড়াক্কা। মাত্র দুই রানের ব্যবধানে ছয় উইকেট হারিয়ে শেষ পর্যন্ত ভক্তদের বিস্মিত করে টানা চতুর্থ ম্যাচ পরাজয়ের গ্লানি নিয়ে মাঠ ছাড়ল কলকাতা নাইট রাইডার্স। অধিনায়ক শেন ওয়াটসন ও প্রবীন তাম্বে বল হাতে অসাধারণ নৈপুণ্য দেখিয়ে ১০ রানে টানা চতুর্থ জয় পেল জয়পুরের ফ্র্যাঞ্চাইজি।

রাজস্থান রয়্যালস: ১৭০/৬ (২০ ওভার)
কলকাতা নাইট রাইডার্স: ১৬০/৬ (২০ ওভার)
ফল: রাজস্থান রয়্যালস জয়ী ১০ রানে

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুটা যেমন হওয়া উচিত ছিল তেমনই হলো। ১৪ ওভার শেষে উথাপ্পা ও গম্ভীরের দুই ফিফটিতে ১২১ রান এল। উদ্বোধনী জুটিতেই এমন রান হলে জয় তো ধরা দেওয়ার কথা সহজেই। কিন্তু সেটা হলো না।

রাজস্থান অধিনায়ক ওয়াটসন নিজের তৃতীয় ওভার করতে এলেন। তার প্রথম বলেই এক্সট্রা কভার দিয়ে মারতে গিয়ে পেছনে সানজু স্যামসনের গ্লাভসবন্দি হলেন গম্ভীর। কলকাতা অধিনায়কের ইনিংস থামল ৩৪ বলে ৫৪ রানে, ছয় চার ও এক ছয়ে সাজানো ইনিংস।

এক বল বিরতি দিয়ে স্কয়ার লেগে দাঁড়িয়ে থাকা রজত ভাটিয়ার তালুবন্দি হয়ে ওয়াটসনের দ্বিতীয় শিকার হলেন উথাপ্পা। ৫২ বলে পাঁচ চার ও তিন ছয়ে খেললেন ৬৫ রানের সেরা ইনিংস। নাটকের বাকি ছিল আরও। আন্দ্রে রাসেল চতুর্থ বলটি কোনোভাবে ঠেকিয়ে পরের বলেই বোল্ড হলেন মাত্র এক রানে।

তাম্বে তার শেষ ওভারটি হাতে নিয়ে বিস্মিত করলেন কলকাতাকে। মনীষ পান্ডে, ইউসুফ পাঠান ও রায়ান টেন ডেসকাটকে শূন্য হাতে ফিরিয়ে এবারের মৌসুমের প্রথম হ্যাটট্রিক পেলেন এই লেগব্রেকার। মাত্র নয় বলে ছয় উইকেট হারানো দলটি আর উঠে দাঁড়াতে পারেনি।

সাকিব আল হাসান তখন ব্যাটিংয়ের অপর প্রান্তে দাঁড়িয়ে তাম্বের হ্যাটট্রিক দেখছিলেন। শেষ পর্যন্ত টিকে ছিলেন বাংলাদেশি অলরাউন্ডার। তার সঙ্গে ছিলেন সূর্যকুমার যাদব। শেষ ওভারে ১৭ রান দরকার থাকলেও ওয়াটসনের ইয়র্কার ও বাউন্সে ছয় রান করতে সমর্থ হয় তারা। সাকিব ১৪ বলে ২১ রানে অপরাজিত ছিলেন। ৯ রানে ছিলেন সূর্যকুমার।

ওয়াটসন ও তাম্বে তিনটি করে উইকেট পান। ম্যাচসেরা হয়েছেন তাম্বে।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে টপ অর্ডারের নৈপুণ্যে বড় সংগ্রহ করে রাজস্থান। জ্যাক ক্যালিসকে ছাড়াই এদিন মাঠে নেমেছিল তারা। তাতে সমস্যা হয়নি। করুন নায়ারের ৩৫ বলে চার চার ও এক ছয়ে ৪৪ রানের সেরা ইনিংসের সঙ্গে স্যামসন (৩৭), ওয়াটসন (৩১) ও অজিঙ্কা রাহানে (৩০) কার্যকরী ইনিংস খেলেন।

সাকিব বল হাতে এদিন পেয়েছেন মাত্র একটি উইকেট, ২৫ রান দেন তিনি। দুটি করে উইকেট পান বিনয় কুমার ও সুনীল নারাইন।

এনিয়ে সাত ম্যাচে পঞ্চম জয়ে রাজস্থান ১০ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে। সমান খেলে চার পয়েন্টে পাঁচে কলকাতা

শেয়ার