ইউক্রেইন : যুক্তরাষ্ট্রের সাহায্য কামনা রাশিয়ার

Russian
সমাজের কথা ডেস্ক॥ দক্ষিণ-পূর্ব ইউক্রেইনে দেশটির সেনাবাহিনীর অভিযান তাৎক্ষণিকভাবে বন্ধ করতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাব ব্যবহার করা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ।
এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়ার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী।
শনিবার রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এক বিবৃতিতে কথা জানানো হয়েছে।
ইউক্রেইনের উত্তেজনা প্রশমণে জেনেভা ঘোষণার শর্ত পূরণে কিয়েভের বাধ্যবাধকতা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে মধ্যস্থতাকারী ‘দ্য অর্গানাইজেশন ফর সিকিউরিটি এন্ড কোঅপারেশন ইন ইউরোপ’র (ওএসসিই) ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ বলেও মন্তব্য করেছেন ল্যাভরভ।
রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “সংবিধান সংস্কার করার জন্য ইউক্রেইনের সব অঞ্চলের প্রতিনিধিদের নিয়ে জাতীয় আলোচনা শুরু করা হলে ও ডানপন্থী সন্ত্রাসীদের নিবৃত্ত করা হলে ইউক্রেইনের উত্তেজনা প্রশমণের সম্ভবনা এখনও আছে।”
স্লাভিনস্ক শহরসহ ইউক্রেইনের দক্ষিণপূর্বাঞ্চলীয় এলাকায় দেশটির সেনা অভিযান শুরু করার বিষয়ে জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রাঙ্ক-ওয়াল্টার স্টিনমেয়ারের কাছে এক টেলিফোন আলোচনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ল্যাভরভ।
ল্যাভরভ উদ্বেগ প্রকাশ করার পর স্টিনমেয়ার তার সঙ্গে সহমত প্রকাশ করে ওই এলাকায় সহিংসতা বন্ধ করা উচিত বলে মত প্রকাশ করেছেন বরে বিবৃতিতে জানানো হয়।
এদিকে, ইউক্রেইনের পূর্বাঞ্চলীয় শহর স্লাভিনস্ক রুশপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের শক্ত ঘাঁটিতে পরিণত হয়েছে।
শনিবার ওই শহর সংলগ্ন এলাকায় দ্বিতীয় দিনের মতো অভিযান চালিয়ে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের ওপর চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে ইউক্রেইন।
এর আগে স্লাভিনস্কের নিকটবর্তী শহর ক্রামাতোর্স্কে অভিযান চালিয়ে একটি টেলিভিশন টাওয়ার ও নিরাপত্তা বাহিনীর একটি দপ্তর পুনর্দখল করা হয়েছে বলে জানিয়েছিল ইউক্রেইন।

শেয়ার