আরবপুরে বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে সাড়ে ৫শ’ নেতাকর্মীর আ’লীগে যোগদান ॥ বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রায় শাহীন চাকলাদারকে বরণ

sahi
নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরের আরবপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে সাড়ে ৫শ’ বিএনপির নেতাকর্মী আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছেন। শুক্রবার মুক্তেশ্বরী মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদারের হাতে ফুল দিয়ে তারা বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগদেন। শাহীন চাকলাদার দ্বিতীয় বারের মতো উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে সদর উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক শাহারুলের নেতৃত্বে আরবপুরবাসী তাকে সংবর্ধনা দেন। আর এ অনুষ্ঠানেই সাড়ে ৫ শ’ বিএনপি নেতাকর্মীকে আওয়ামী লীগে যোগদান করিয়ে চমক সৃষ্টি করে স্থানীয় আওয়ামী লীগ।
শাহীন চাকলাদারকে সংবর্ধনা দিতে গেল এক সপ্তাহ ধরে আরবপুর ইউনিয়নে চলছিলো ব্যাপক তোড়জোড়। প্রতিটি ওয়ার্ডে সুদৃশ্য তোরণ নির্মাণ ও র‌্যালি করে প্রচারণা চালায় নেতাকর্মীরা। অবশেষে শুক্রবার নেতাকর্মীরা তাদের আয়োজন সফল করে। স্থানীয় ৫ হাজার নেতাকর্মীরা বিশাল বহর ও ব্যানার ফুস্টুন লাগিয়ে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা করে শাহীন চাকলাদারকে শহরের ধর্মতলা থেকে রিসিভ করেন। এসময় নেতাকর্মীদের ভিড়ে ওই এলাকায় যানজট দেখা দেয়। পথচারীরা সময়িক অসুবিধায় পড়লেও কর্মীদের উচ্ছ্বাস দেখে প্রাণ ভরে। পরে সেখান থেকে শাহীন চাকলাদারকে উৎসবমুখর পরিবেশে মুক্তেশ্বরী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নির্মিত মঞ্চে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে বক্তব্যদান শেষে শুরু হয় যোগদান। আরবপুর ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের বিএনপি নেতা আমানুল্লাহ, শাহীন, কাশেম, তরিকুল ইসলামের নেতৃত্বে ১০৩ কর্মী শাহীন চাকলাদারের হাতে ফুল দিয়ে আওয়ামী লীগে যোগদেন। দুই নম্বর ওয়ার্ড থেকে মোতাচ্ছির ও মধুর নেতৃত্বে ৫০ জন, তিন নম্বর ওয়ার্ড থেকে মান্নানের নেতৃত্বে ৩০ জন, চার নম্বর ওয়ার্ডের সাহেব আলীর নেতৃত্বে ১৫০ নেতাকর্মী, চয় নম্বর ওয়ার্ডের ওসমানের নেতৃত্বে ৫০ জন, আট নম্বর ওয়ার্ডের বিএনপি নেতা জামাত আলীর নেতৃত্বে ৩০ এবং ৫ নম্বর ওয়ার্ড থেকেও শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মী আওয়ামী লীগে যোগদেন শাহীন চাকলাদারের হাতে ফুল দিয়ে।
এসময় জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার বলেন, বিএনপি যুদ্ধাপরাধী জামায়াতের সঙ্গ ত্যাগ না করায় দলটির মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের নেতাকর্মীরা আওয়ামী লীগে আসছে। তারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশে গড়ায় শরিক হতে বিএনপি ত্যাগ করছেন। শাহীন চাকলাদার আরও বলেন, বিএনপি দেশে লুটপাট করে দেশকে পেছনের দিকে ঠেলে দিয়েছিল। বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা দায়িত্ব নিয়ে দেশকে উন্নতির দিকে নিয়ে চলেছেন। দেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত বাংলাদেশ। ঘরে বসে ডিজিটালাইজ সেবা মিলছে। এটা বিএনপির সহ্য হচ্ছে না।

শেয়ার