আসামে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের হামলায় নিহত ২৯, সান্ধ্যআইন জারি

karfue
সমাজের কথা ডেস্ক॥ ভারতের আসাম রাজ্যের তিনটি জেলায় সন্দেহভাজন বোড়ো বিচ্ছিন্নতাবাদীদের হামলায় ২৯ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনার পর রাজ্যের ওই তিনটি জেলা কোকড়াঝড়, চিরঙ্গ এবং বাক্সা জেলায় সান্ধ্যআইন জারি করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার বোড়োল্যান্ড আঞ্চলিক কাউন্সিলের আওতাধীন এলাকায় পৃথক পৃথক হামলায় এসব হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।
শুক্রবার বাক্সা জেলার নারায়ণগুড়ি এলাকায় মানাস জাতীয় উদ্যানের কাছে ১২টি মৃতদেহ পাওয়া যায়। এরপর রাতে একই জেলায় শালবাড়ি এলাকায় আরো সাতটি মৃতদেহ পাওয়া যায়। এই সাতজনের মধ্যে পাঁচজনই শিশু।
ওই দিন নিষিদ্ধঘোষিত বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী ন্যাশনাল ডেমক্রেটিক ফ্রন্ট অব বোড়োল্যান্ডের সদস্যরা কোকড়াঝড়ের বালাপাড়া এলাকার একটি গ্রামে এলোপাতাড়ি গুলি ছুঁড়ে ঘটনাস্থলেই সাতজনকে হত্যা করে। নিহতদের মধ্যে চার নারী ও দুই শিশু রয়েছেন। এ সময় তিনজন আহত হন।
বৃহস্পতিবার রাতে বিচ্ছিন্নতাবাদীরা বাক্সা জেলায় এক পরিবারের তিনজনকে গুলি করে হত্যা করে। নিহতদের মধ্যে দুজন নারী রয়েছেন। এছাড়া গুলিতে একটি ছোট শিশু মারাত্মক আহত হয়েছেন।
দ্ইু বছর আগে এই এলাকায় ব্যাপক নৃগোষ্ঠীগত দাঙ্গা হয়েছিল।
পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে প্রাদেশিক সরকার ঘটনাস্থলে ১০ কোম্পানি আধা সামরিক বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করেছে। পাশাপাশি সেনা বাহিনীকেও তৈরি থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
ন্যাশনাল ডেমক্রেটিক ফ্রন্ট বোড়ো নৃগোষ্ঠীর জন্য পৃথক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে লড়াই চালিয়ে আসছে।
২৪ এপ্রিল অঞ্চলটিতে ভারতের লোকসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠানের পর এই ধারাবাহিক হামলা-সহিংসতার ঘটনা ফের শুরু হয়।
২০১২ সালে এই এলাকায় বোড়ো ও মুসলিমদের মধ্যে ব্যাপক নৃগোষ্ঠীগত দাঙ্গায় একশ’রও বেশি মানুষ নিহত হয় এবং লাখ খানেক মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়।

শেয়ার