শ্যামনগরে লবনপানি অবমুক্তসহ খালের বন্দোবস্ত বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন

shatkhira manob
শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি॥ শ্যামনগর উপজেলার চকবারা মানব কল্যান কৃষক সংগঠন ও সুন্দরবন স্টুডেন্ট সলিডারিটি টিম স্থানীয় কৃষকদের নিয়ে লীখালী সাইকোন সেন্টার এলাকায় মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। সেখানে লবনপানি অবমুক্ত ও বন্দোবস্ত বাতিলের দাবি জানিয়ে শ্লোগান দেয়া হয়।
মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় সাইকোন সেন্টার সংলগ্ন খালের পাড়ে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন শেষে সাইকোন সেন্টার চত্বরে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। ডুমুরিয়া গ্রামের কৃষক আঃ আজিজ লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। বক্তব্যে তিনি বলেন, আমরা গাবুরা ইউনিয়নের ডুমুরিয়া-লখালী ও ১০ নং সোরা গ্রামের কৃষক। ২০০৯ সালের ২৫ মে আইলার পর সমস্ত গাবুরা ইউনিয়ন লবন পানিতে প্লাবিত হয়। দীর্ঘ ৩/৪ বছর কৃষি জমিতে ধান চাষ হয়নি। তারপরও জমিতে লবন পানি তুলে চিংড়ী চাষ করা হয়নি। যেকারণে গত বছর আমন মৌসুমে ব্যাপক ধান উৎপাদন করতে সমর্থ হন চাষী। আমন মৌসুমে ধানের বাম্পার ফলন দেখে গাবুরায় ডুমুরিয়া-লীখালী ও ১০ নং সোরা গ্রামের কুষকদের চিংড়ী চাষ বাদ দিয়ে ধান ও অন্যান্য কৃষি ফসল চাষের আগ্রহ তৈরী হয়। পাশাপাশি গাবুরার চকবারা গ্রামের মানব কল্যান কৃষক সগঠনের উদ্যোগে ২০১৪ সালের বোরো মৌসুমে লীখালী গ্রামে প্রাথমিক ভাবে ৪টি জাতের ধান পরীামূলক চাষ করে আশানরুপ ফলন পেয়ে চাষে আগ্রহ আরো বেড়ে গেছে চাষীদের। তিনি অভিযোগ করেন গাবুরা ইউনিয়নের এই তিন গ্রামের শতাধিক কৃষক বোরো মৌসুমে উপযোগী সেচের পানি সংকটের কারনে ধান ও অন্যান্যা ফসল চাষ করতে পারছে না। গাবুরার ডুমুরিয়া-লীখালী ও ১০ নং সোরা গ্রামের ২টি খাস খাল রয়েছে। আইলার সময় এ খাল ২টি লবন পানিতে ভরে যায়। বাঁধ হওয়ার পর ১০ নং সোরা খালটি সরকারের নিয়ন্ত্রনে ছিল। পরবর্তীতে ১০ নং সোরা খালটি জনৈক আব্দুল হাকিম শেখ ৯ নং সোরা গ্রামের জেলে সমিতির নামে বন্দোবস্ত নেন। যদিও ঐ বন্দোবস্তে উলেখ শর্ত দেয়া আছে জনস্বার্থে যে কোন সময় বন্দোবস্ত বাতিল হবে। এই খালটির খতিয়ান- নং-১, এসএ, ১,৭৪,১৫৯,৩৫২, জমির পরিমাণ ২৮.৮১ শতক। খালটি ডুমুরিয়া গ্রামের কুদ্দুস মাস্টারের বাড়ী থেকে লীখালী মুন্ডা পাড়া পর্যন্ত কৃষি জমি রায় ও ফসল চাষের ল্েয বন্দোবস্ত বাতিল করে মিষ্টি পানি সংরনের জোর দাবি জানানো হয়। আয়োজকদের পে মানব বন্ধন ও সংবাদ সম্মেলনে কৃষক নেতা আবু মুছা, আব্দুল হাই সরদার, আব্দুল আজিজ, এয়াকুব আলী মিস্ত্রি, মাওলানা সাইফুলাহ, আজিজুল ইসলাম হাজী, মাহফুজ বিলাহ, হযরত আলী (হাজু) মড়ল, নাসির মোড়ল, মতলেব কাগুচি, বাক্কার মড়লসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার