পোকা-মাকড় মারতে জীবন উৎসর্গ

japan
সমাজের কথা ডেস্ক॥ চীনের পূর্বাঞ্চলীয় শহর হ্যাঙঝাও শহরের বাসিন্দা রুয়ান টাঙয়ের বয়স ৮০ বছর। ইতোমধ্যেই চাকরি জীবন থেকেও অবসর নিয়েছেন তিনি। তাই সময় কাটাতে বাকিটা জীবন বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে প্রতিদিন কমপক্ষে এক হাজার পোকা-মাকড় মারবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।
জানা যায়, গত ১৪ বছর ধরে এই পোকা-মাকড় মারার কাজে দিনে ৮ ঘণ্টা ব্যায় করছেন রুয়ান। বিভিন্ন স্থানে গিয়ে তিনি দৌড়ে দৌড়ে পোকা-মাকড় খতম করেন।
হ্যাঙঝাও শহরের চ্যাঙমিংসিয়াঙ সম্প্রদায়ে বসবাসরত রুয়ান বলেন, ‘আমি এখন অবসরপ্রাপ্ত। অবসর সময়ে আমি এমন কিছু করতে চাইছিলাম যা সবার জন্য উপকারি এবং সেইসঙ্গে কার্যকরীও হয়। তাই আমি সবার কাছে জানতে চাই গরমকালে ঠিক কি পরিমাণ পোকা-মাকড় মানুষকে বিরক্ত করে। তথ্য জানার পর আমি সিদ্ধান্ত নেই সমাজ সেবা করার কার্যকর একটি উপায় হলো এসব পোকা-মাকড় খতম করা। এখন আমি প্রতিদিন ৮ ঘণ্টা করে কমপক্ষে এক হাজার পোকা-মাকড় মারছি।’
এদিকে রুয়ানের এই অভিনব সমাজ সেবা উদ্যোগ নিয়ে হইচই পড়ে গেছে চীনের মিডিয়াগুলোতে। তারা ফলাও করে প্রচার করছে তার পোকা-মাকড় মারার দৃশ্য। তারা বলছে, মানুষের শত্রু, বিরক্তিকর শব্দ করা ও রোগ বালাই ছড়ানো পোকা-মাকড়দের বিরুদ্ধে এটি রুয়ানের চমৎকার বিদ্রোহ।
এ বিষয়ে একটি টেলিভিশনে দেয়া সাক্ষাৎকারে রুয়ান বলেন, ‘পোকা মেরে প্রতিবেশীদের সাহায্য করতে পেরে আমি খুব গর্বিত। আমি আমার বাকি জীবনটাকে এর জন্য উৎসর্গ করছি। আমার এই বয়সে এটি আমাকে ফিট থাকতেও সাহায্য করছে।’

শেয়ার