খাদ্য নিরাপত্তায় সহায়ক হবে ‘ফার্টিলাইজার রিকমেন্ডেশন’

Motia chowdhuri
সমাজের কথা ডেস্ক॥ দেশ জুড়ে ফার্টিলাইজার রিকমেন্ডেশন সফটওয়্যার চালু হয়েছে। দেশের খাদ্য নিরাপত্তা টেকসই করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে এই সফটওয়্যার বলে মন্তব্য করেছেন কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর খামারবাড়িতে বাংলাদেশ অ্যাগ্রিকালচার রিসার্স কাউন্সিলে এ সফটওয়্যারের উদ্বোধন শেষে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ক্যাটালিস্ট ও সয়েল রিসোর্স ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউট ‘অ্যাগ্রি বিজনেস ফর ট্রেড কম্পিটিটিভ প্রজেক্ট’ (এটিসি-পি) এর মধ্যমে সফটওয়্যারটি নির্মাণ করা হয়েছে।

ওয়েবসাইটভিত্তিক িি.িভৎং-নফ.পড়স বাংলা সফটওয়্যার প্যাকেজের মাধ্যমে কৃষকরা মাটির ধরন ও শষ্য অনুযায়ী সারের সঠিক মাত্রা সম্পর্কে জানতে পারবেন। সহজ ব্যবহারযোগ্য এই ওয়েবসাইটে জেলা, উপজেলা এবং ইউনিয়নভিত্তিক মাটি, শষ্যের ধরন অনুযায়ী তথ্য পাওয়া যাবে।

মতিয়া চৌধুরী বলেন, মাটির স্বাস্থ্য ঠিক না থাকলে ফসলের উৎপাদন কাঙ্ক্ষিত পর্যায়ে উন্নীত করা যায় না। আর এর জন্য প্রয়োজন সুষম সারের ব্যবহার। টেকসই খাদ্য নিরাপত্তার জন্য আমাদের মাটির স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে হবে।

বাস্তবতা হলো শুধু জৈব সারের ওপর নির্ভর করে থাকা যাবে না। জৈব সারের পাশাপাশি আমাদের কেমিক্যাল সারের দিকে যেতে হবে। কিন্তু তার সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। বিভিন্ন জায়গা থেকে মাটির নমুনা সংগ্রহ করে তা বিশ্লেষণের মাধ্যমে বিশাল তথ্য ভা-ার তৈরি করা হয়েছে। তথ্য ভা-ারকে ডিজিটালাইজড করা হয়েছে। যে কেউ এখন থেকে তথ্য পেতে পারেন।

কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধিতে সরকার আরও পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে বলেও জানান মতিয়া।

এসময় এসএফ অ্যান্ড এসএফটি ফাইনাল ওয়ার্কশন, কৃষি প্রযুক্তি মেলারও উদ্বোধন করেন মন্ত্রী।

শেয়ার