রেলপথ আধুনিকায়নে ১৯ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প

muzibul haq
সমাজের কথা ডেস্ক॥ রেলপথ আধুনিকায়নে ১৯ হাজার কোটি টাকার ৪৪টি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী মজিবুল হক এমপি।

শুক্রবার বেলা ১২টায় ‘জাতীয় পরিবহন ও গণমুখী যোগাযোগ ব্যবস্থায় রেল পথের গুরুত্ব : প্রেক্ষিত বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ তথ্য জানান।

রাজধানীর কাকরাইলে ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (আইডিইবি) ভবনের কাউন্সিল হলে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

মন্ত্রী বলেন, প্রকল্পগুলোর ৫০ থেকে ৭০ ভাগ বাস্তবায়িত হয়েছে। শতভাগ বাস্তবায়িত হলে রেল ব্যবস্থায় নতুন গতি আসবে।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় রেলে মহাপরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, যোগাযোগ ব্যবস্থায় রেল পথের অনেক গুরুত্ব আছে। তাই রেলের সমস্যা সমাধান করতে স্বল্প ও দীর্ঘ মেয়াদি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে।

বিশ্বের উন্নত দেশের মতোই আমাদের রেল গতি পাবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ২০০০ সালের আগে রেল মন্ত্রণালয় ছিল না। এটি যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের আওতায় ছিল। কিন্তু রেলপথ উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় রেল মন্ত্রণালয় গঠন করা হয়েছে। এর মাধ্যমে বেশি সেবা দেওয়া যাচ্ছে।

মজিবুল হক বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে রেলপথ ছিল অবহেলিত। সে সময় দু’শটি স্টেশন বন্ধ ছিল।

আ’লীগ ক্ষমতায় আসার পর রেল পথে অনেক নজর দিয়েছে। বন্ধ স্টেশনগুলোও চালু করা হয়েছে। ভৈরব-তিস্তা ব্রিজের কাজ শেষ হয়েছে। ঢাকা-জয়দেবপুরে কাজ চলছে। এছাড়া রামু থেকে কক্সবাজার পযর্ন্ত ১৮০ কিলোমিটার এবং খুলনা-মংলা বন্দর পর্যন্ত রেলপথ হবে। এডিবি ও জাইকার অর্থায়নে এসব উন্নয়নমূলক কাজ করা হচ্ছে বলে জানান মন্ত্রী।

আইডিইবি’র সভাপতি একেএমএ হামিদের সভাপতিত্বে সেমিনারে অংশ নেন, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক তাফাজ্জল হোসেন, আইডিইবি’র সাধারণ সম্পাদ শামসুর রহমান প্রমুখ।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আইডিইবি’র উপ-পরিচালক প্রকৌশলী ইয়াকুব হোসেন শিকদার।

শেয়ার