ডিজিটাল যশোরের কার্যক্রম দিনব্যাপী ঘুরে দেখলেন প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী পলক ॥ সারাদেশে এ জেলার মডেল ছড়িয়ে দেয়ার প্রত্যয়

polok
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ ডিজিটাল শিক্ষায় আলোকিত হয়েছে যশোর। শিক্ষা পোর্টাল, মাল্টিমিডিয়া কাসরুম, ডিজিটাল এটেনডেন্ট, ডিজিটাল পদ্ধতিতে বিভিন্ন সেবা আদান প্রদান এখন সারা দেশের মডেল হয়েছে যশোর। আর এসব ডিজিটাল কার্যক্রম নিজে চোখে দেখে আনন্দিত ডাক টেলিযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক সারা দেশে এ মডেল ছড়িয়ে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।
তখন ঘড়িতে সবে ৯টা পার হয়েছে। যশোর মোমিন গালর্স স্কুলে ৫ম শ্রেণীর মাল্টিমিডিয়া সিস্টেমে কাস হচ্ছে। শ্রেণি শিক্ষক সৌরজগতের ধুমকেতু বিষয়ে বড় পর্দায় হাতে কলমে শেখানো হচ্ছে। সাদামাটা পরিবেশে কাসে ঢুকে পড়লেন প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। হাতে কলমে শিক্ষার্থীদের এ শিক্ষা দিতে দেখে অভিভূত হলেন। অন্যরুমে ৯ম শ্রেণির ইংরেজি কাসেও একইভাবে হাতে কলমে শিক্ষা দিচ্ছেন শ্রেণি শিক্ষক। ডিজিটাল শিক্ষায় যশোরের এ অগ্রগতিতে অভিভূত মন্ত্রী এর আগে গিয়েছিলেন যশোর কালেক্টরেট স্কুলে। এ স্কুলে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি শুরু হতে যাচ্ছে ডিজিটাল পদ্ধতিতে। শিশু শিক্ষার্থীদের হাতের ছোঁয়ায় কিভাবে উপস্থিতি জানান দেবে সেবিষয়ে তাকে অবহিত করেন জেলা প্রশাসক মোস্তাফিজুর রহমান। শুধু তাই নয়; যশোরের ১হাজার২৬৬ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বৃহস্পতিবার ২ লাখ ৮৭ হাজার ৪৮৩ শিক্ষার্থী স্কুলে এসেছেন। যশোর শিক্ষা পোর্টালে কিক করেই জানতে পারলেন প্রতিমন্ত্রী। পৃথিবীর যে কোন প্রান্ত থেকে যশোর শিক্ষা পোর্টালে প্রবেশ করে জানা যাচ্ছে প্রতিদিনকারের শিক্ষা সম্পর্কিত সব ধরনের তথ্য উপাত্ত। এসব দেখে জেলা কালেক্টরেট সভাকক্ষে মতবিনিময় সভায় অকপটে মন্ত্রী বলেন, তথ্য প্রযুক্তিতে মন্ত্রণালয়ের চেয়ে যশোর এগিয়ে। তিনি এ জেলার মডেল সারাদেশে ছড়িয়ে দিতে কাজ করবেন বলে জানান।
পরে জেলা প্রশাসক মোস্তাফিজুর রহমান প্রজেক্টরের মাধ্যমে জেলার ই-সেবা, ই-ফাইলিং, জেলার মাধ্যমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নিজস্ব ওয়েব সাইট, মাল্টিমিডিয়া কাস রুম, জেলা ই-সেবা কার্যক্রম, ৫৭ ইউনিয়ন তথ্য সেবা কেন্দ্রে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ ইত্যাদি কার্যক্রম প্রতিমন্ত্রীকে দেখান। পরে প্রতিমন্ত্রী যশোর শিক্ষাবোর্ডের ডিজিটাল কার্যক্রম ও শহরের শংকরপুর এলাকায় ৫২ কোটি টাকা ব্যয়ে হাইটেক পার্ক নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেন। এরআগে সকালে সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ‘বাড়ি বসে বড় লোক’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন করেন তিনি। এসব কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন হাইটেক পার্ক অথরিটির ম্যানেজিং ডিরেক্টর হোসনে আরা বেগম, বেনাপোল পৌরসভার মেয়র আশরাফুল আলম লিটন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক জাহিদ হোসেন পনির, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সাবিনা ইয়াসমিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফয়েজ আহমেদ, সহকারী পুলিশ সুপার রেশমা শারমিন।

শেয়ার