নিউইয়র্কে ২০ বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান পুড়ে ছাই

usa
সমাজের কথা ডেস্ক॥ নিউইয়র্কে বাংলাদেশি অধ্যুষিত জ্যাকসন হাইটসে সোমবার (যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় অনুযায়ী) ভয়াবহ এক আগুনে পুড়ে গেছে বাংলাদেশি মালিকানাধীন ২০টি প্রতিষ্ঠান।

স্থানীয় সময় বিকেল পৌনে ৫টার দিকে ব্রুজম বিল্ডিংয়ের তিনতলায় একটি নেপালি ল’ফার্ম অফিস থেকে আগুনের সূত্রপাত হয় বলে ধারণা করা হচ্ছে।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের বিশটি ইউনিট ১০ মিনিটের মধ্যে ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছে আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে। আগুন লাগার সময় ভবনে থাকা লোকজনের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। আশেপাশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়। উৎসুক মানুষের ভিড় সামলাতে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসকে বেশ বেগ পেতে হয়। এ সময় বন্ধ করে দেয়া হয় ৩৭ এভিনিউয়ের ৭৩ স্ট্রিট থেকে ৭৬ স্ট্রিট পর্যন্ত রাস্তা। এতে ভোগান্তিতে পড়েন হাজারো মানুষ। আশপাশের রাস্তাগুলোতে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

প্রায় তিনঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এ সময় ধোঁয়ায় অন্ধকার হয়ে যায় পুরো এলাকা। ব্রুজম বিল্ডিংটিতে ২০টি বাংলাদেশি মালিকানাধীন ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান ছিল। সবগুলো প্রতিষ্ঠানই পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত টেলিলিংক নামের প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার মাসুম মোহাম্মদ মহসিন বাংলানিউজকে বলেন, ভবনটিতে তার চারটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। সবগুলো অফিসেই পুড়ে গেছে বলে তিনি জানতে পেরেছেন।

এটর্নি মাহফুজুর রহমান জানান, আগুন লাগার খবর শুনে তিনি দ্রুত অফিসে এসে দেখেন সব কিছু পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। নিরাপত্তা কর্মীদের বাধার কারণে তিনি ভেতরেও ঢুকতে পারেননি। আগুনে প্রাথমিকভাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানা যায়নি।

এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। ভবনের ইএসএল প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে কর্মরত সীমা বাংলানিউজকে বলেন, ফায়ার অ্যালার্ম বাজার পর সবাই বেরিয়ে যায়। আমার জানা মতে, কেউ আটকেও পড়েনি এবং কেউ হতাহতও হয়নি।

শেয়ার