দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ বিশ্বের মডেল

Ban ki moon
সমাজের কথা ডেস্ক॥ দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশকে বিশ্বের মডেল হিসেবে আখ্যায়িত করে ভূয়সী প্রশংসা করেছেন জাতিসংঘের মহাসচিব বানকি মুন।

তিনি বলেন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ বিশ্বে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

বানকি মুন বলেন, জনসংখ্যার ঘনত্বের বিচারে বাংলাদেশ পৃথিবীর সবচেয়ে ঘনবসতির দেশ। গত ২০ বছরে দেশটির ১৩৫ মিলিয়ন লোক প্রাকৃতিক দুর্যোগের কবলে পড়েছেন। অথচ দেশটির গ্রামীণ পর্যায়ে সরকারি উদ্যোগে ৬২ হাজার স্বেচ্ছাসেবী দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক প্রশিণ প্রদান এবং যে কোনো দুর্যোগের পর দ্রুত সাড়া দিতে ২৫ হাজার কমিউনিটি স্বেচ্ছাসেবী প্রস্তুত রাখা সত্যিই দুর্যোগপ্রবণ বিশ্বের অন্য দেশগুলোর জন্য অনুসরণীয় হতে পারে।

জাতিসংঘের মানবিক ও জরুরি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের আয়োজনে জাতিসংঘ সদর দফতরে বিশ্ব দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ সব কথা বলেন।

ব্রিফিংয়ে জাতিসংঘের মহাসচিব তিনটি বিশেষ পরামর্শ দেন। প্রথমত- এমডিজির ল্য পূরণ করা, দ্বিতীয়ত- ২০১৫ পরবর্তী উন্নয়ন এজেন্ডার রূপরেখা তৈরি করা, তৃতীয়ত- বিশ্বে জলবায়ু পরিবর্তনের ওপর একটি সর্বজনীন আইনি চুক্তি গ্রহণ করা।

এছাড়া দুর্যোগ মোকাবেলায় ‘প্রিভেন্টিভ’ ব্যবস্থার সুপারিশও করেন তিনি।

ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড.এ.কে. আব্দুল মোমেন দুর্যোগ মোকাবেলায় বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণের বিষয়টি তুলে ধরে বলেন, জলবায়ুজনিত ঝুঁকির কারণে বাংলাদেশের মানুষ প্রকৃতির সঙ্গে যুদ্ধ করে বেঁচে থাকে।

শেয়ার