নির্বাচনী অঙ্গীকার বাস্তবায়নের পরিকল্পনা দ্রুত করার নির্দেশ মন্ত্রিসভার

Minister
সমাজের কথা ডেস্ক॥

নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী মন্ত্রণালয়গুলোকে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কর্মপরিকল্পনা(‘টাইম বাউন্ড অ্যাকশন প্ল্যান’) তৈরির যে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল, সেই কাজ দ্রুততার সঙ্গে করার নির্দেশ দিয়েছে মন্ত্রিসভা।
সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা সাংবাদিকদের এ কথা জানান।
এ বছরের ১২ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার গঠিত হয়। এরপরই ২০ জানুয়ারি মন্ত্রিসভা মন্ত্রণালয়গুলোকে ‘টাইম বাউন্ড অ্যাকশন প্ল্যান’ তৈরির নির্দেশ দেয়।
মন্ত্রিসভা বৈঠকে গৃহিত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের বিষয়ে ২০১৪ সালের প্রথম ত্রৈমাসিক (জানুয়ারি-মার্চ) প্রতিবেদন উপস্থাপনকালে সোমবার মন্ত্রিপরিষদ মন্ত্রণালয়গুলোকে এ নির্দেশ দেয়।
৩১ মার্চ পর্যন্ত মন্ত্রিসভায় গৃহিত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের হার ৫১.৩৫ শতাংশ জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, এ সরকারের আমলে মন্ত্রিপরিষদের বৈঠক হয়েছে ১০টি। এসব বৈঠকে ৩৭টি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যার মধ্যে ১৯টি সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হয়েছে।
তিনি জানান, এ সময়ে সংসদে আইন পাশ হয়েছে ২টি। নীতি বা কর্মকৌশল পাশ হয়েছে ২টি, চুক্তি হয়েছে ৬টি।
সরকারের এ সময়ে ২৬টি সারসংক্ষেপ উপস্থাপন করা হয়।
মোশাররাফ হোসেন ভূইঞা জানান, দুটি সামরিক শাসন আমলের প্রায় সাড়ে পাঁচশ অধ্যাদেশ বাতিল করা হয়েছে। এসব অধ্যাদেশ থেকে ২৫৭টিকে আইনে পরিণত করতে হবে।
অধ্যাদেশগুলোকে আইনে পরিণত করার কাজ চলছে। এরইমধ্যে ১১টি মন্ত্রণালয়ের ১৬টি অধ্যাদেশ নিয়ে কাজ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩টি অধ্যাদেশকে নীতিগত অনুমোদন, ১৩টি চূড়ান্তভাবে অনুমোদন করা হয়েছে। যার মধ্যে ১১টিকে আইনে পরিণত করা হয়েছে।
সচিব জানান, ১৯৮৭ সালের ‘বাংলা ভাষা বাস্তবায়ন আইন’ জারির পর আইনগুলোকে বাংলায় করতে হচ্ছে। তাই কিছুটা সময় লাগছে।

শেয়ার