মহম্মদপুরে খোলা বাজারে বিক্রি হচ্ছে নিম্নমানের চাল॥ মিলছে না ক্রেতা

mohamod pur
মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি॥ মাগুরা জেলার মহম্মদপুর উপজেলায় খোলা বাজারে (ওএমএস) নিম্নমানের চাল বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত ৭ এপ্রিল থেকে সরকারের খাদ্য বিভাগ দরিদ্রদের জন্য ডিলারদের মাধ্যমে ন্যায্যমূল্যে খোলাবাজারে(ওএমএস) চাল বিক্রির কার্যকম শুরু করে।
ডিলারদের অভিযোগ জেলা খাদ্য বিভাগ (ওএমএস) কার্যক্রমের শুরুতেই নিম্নমানের চাল সরবরাহ করছে। দাম কম হলে ও খাওয়ার অনুপযোগি হওয়ায় চালের চাহিদা নেই বললেই চলে। এর ফলে প্রতিদিনের বরাদ্দের চাল অবিক্রিত থেকে যাচ্ছে। এ চাল নিয়ে বিপাকে পড়েছে বিক্রেতা ডিলাররা। এ ব্যাপারে খাদ্য বিভাগ জানায় চালের বাজার স্থিতিশীল ও দরিদ্র লোকদের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রাখতে সরকার খোলা বাজারে (ওএমএস) চাল বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয়। মহম্মদপুর উপজেলায় ৬ জন ডিলার চাল বিক্রি করতে পারবেন। উপজেলায় দেড় টন করে চাল প্রতিদিন বিক্রি করতে পারবেন। প্রতি কেজি চাল ২২ টাকা পঞ্চাশ পয়সা দরে কিনে বিক্রি করবেন প্রতি কেজি ২৫ টাকা।
মহম্মদপুর সদরের ভ্যান চালক মফিজুর রহমান বলেন চালে প্রচন্ড গন্ধ এবং খাবার অনুপযোগী। বাজার থেকে (ওএমএস) চালের দামের ব্যবধান মাত্র ৩-৪ টাকা। তাই আমরা বাজার থেকে বেশি দামে চাল কিনেছি।
এ ব্যাপারে মহম্মদপুর উপজেলা সদরের ডিলার খবির মুসল্লি বলেন চালের মান খারাপ হওয়ায় বিক্রি কম। মাগুরা জেলা সদরের খাদ্য নিয়ন্ত্রক সেলিমুল আজম বলেন প্রথম দিকে অভিযোগ থাকলে ও এখন ভালো চাল সরবরাহ করা হচ্ছে।

শেয়ার