নোম্যান্সল্যান্ডে দীর্ঘ লাইন॥ বাড়ছে দুর্ভোগ॥ ছুটির দিনে বেনাপোলে পাসপোর্ট যাত্রীর সংখ্যা তিন গুন বৃদ্ধি

benapole
বেনাপোল প্রতিনিধি॥ সরকারি ছুটির দিনে আন্তর্জাতিক চেকপোষ্ট বেনাপোল দিয়ে বাংলাদেশ ও ভারতে যাতায়াতকারী পাসপোর্ট যাত্রীর সংখ্যা বেড়েছে তিন গুন। শুক্রবার সকাল থেকে নোম্যাান্সল্যান্ড এলাকায় শত শত যাত্রীর ভারতে প্রবেশে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। যাত্রীদের অভিযোগ ভারতের প্রবেশ দ্বারে কর্মরত মাত্র একজন কর্মকর্তা বেশী সময় নিয়ে বাংলাদেশী যাত্রীদের পাসপোর্ট পরীা করে ভারতে প্রবেশের অনুমতি দিচ্ছেন। ধীর গতির কারনে যাত্রীদের প্রখর রৌদ্রের মধ্যে ৪/৫ঘন্টা নোম্যান্সল্যান্ডে দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে। রোগী ও বৃদ্ধ লোকেরা বেশী ও হয়রানি ও দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। মহিলা, রোগী বয়স্ক ব্যক্তি ও শিশুদের জন্য ভারতে প্রবেশে আলাদা কোন লাইন নেই। যাত্রীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেলেও ভারতীয় কাষ্টম ও ইমিগ্রেশন অফিসারের সংখ্যাও বৃদ্ধি পায়নি। যার কারনে এই জন দুর্ভোগ।
যশোর থেকে আসা যাত্রী দিপিকা বিশ্বাস বলেন,তিনি সকাল থেকে ৪/৫ঘন্টা লাইনে দাড়িয়ে অমানবিক কষ্ট করছেন। দীর্ঘন লাইনে থাকায় তিনি অসুস্থ্যবোধ করছেন বলে জানান। বৃহস্পতিবার রাতে চট্রগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা শ্যামলী পরিবহনের যাত্রী আরাধন মন্ডল শুক্রবার সকালে নোম্যান্সল্যান্ডের ভারতীয় গেটে কর্মরত অফিসারকে দীর্ঘলাইন কমাতে আরো বেশী অফিসারকে চেকিংয়ে আসার অনুরোধ জানালে তিনি বলেন লাইনে দাড়িয়ে থাকুন সময় হলে যেতে পারবেন। আমরা কারোর কথায় কাজ করিনা। কারো কথার মতো অফিসার আসবেনা। এসময় লাইনে দাড়ানো ২মহিলা ও এক বৃদ্ধ অসুস্থ্য হয়ে পড়েন।
গোপাল গজ্ঞের মেহেদী বলেন বৃহস্পতিবার বিকালে বাড়ি থেকে রওনা হয়েই সব স্থানেই দুর্ভোগ। বেনাপোল চেকপোষ্টে এসে দুর্ভোগের মাত্রা বেড়েছে আরো কয়েকগুন। এ দুর্ভোগের কবল থেকে পরিত্রান চান তারা। একই কথা বলেন ভারতীয় নাগরিক শশি কুমার দেবনাথ তিনি বলেন, নোম্যান্সল্যান্ডে যদি ৪/৫ঘন্টা দাড়িয়ে থাকতে হয় তাহলে দুপারের কাষ্টম ইমিগ্রেশনের রাত হয়ে যাবে। পাসপোর্টযাত্রী পরীণের ধীরগতিতে তরা গন্তব্যে যেতে পারবেন কিনা এ নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন।
বেনাপোল চেকপোষ্ট ইমিগ্রেশন ওসি মনিরুজ্জামান বলেন-সরকারি ছুটির দিন পাসপোর্ট যাত্রীর যাতায়ত বাড়ে কয়েকগুন। গতকাল ১৫শ পাসপোর্ট যাত্রী যাতায়াত করলেও শুক্রবার সকাল থেকে এ পর্যন্ত ৪হাজার ৩শ যাত্রী গমনাগমন করেছে। এরাইভেল ডেক্সের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। তবে ভারতের সমস্যার কারনে যাত্রী দুর্ভোগ বাড়ছে।

শেয়ার