প্যাডেলচালিত ওয়াশিং মেশিন!

GiraDorabg
সমাজের কথা ডেস্ক॥
সময় বাঁচাতে কষ্টসাধ্য জামা-কাপড় পরিষ্কার করার জন্য আবিষ্কার করা হয় ওয়াশিং মেশিন। এরপর রোদে শুকিয়ে পোশাকের রং নষ্ট না করতে আবিষ্কার করা হয় ড্রায়ার। এ দু’ ধরনের মেশিনই বিদ্যুৎচালিত ও অনেক বেশি মূল্যের বলে এগুলোকে উচ্চবিত্তদেরই ব্যবহার্য বলে মনে করা হতে থাকে।
তবে, এবার উচ্চ-নিম্ন সব বিত্তের জন্যই ‘গিরাডোরা’ নামে সুলভ মূল্যের এক ধরনের যন্ত্র আবিষ্কার করেছেন লাতিন আমেরিকান বিজ্ঞানীরা। বিজ্ঞানী আলেক্স কাবুনোক ও জি এ ইউ’র আবিষ্কৃত মাত্র ৪০ মার্কিন ডলার মূল্যের এই মেশিন চলবে বিদ্যুৎ ছাড়া। আর ওয়াশিংয়ের সঙ্গে ড্রায়িংয়েরও কাজ মুহূর্তেই শেষ করে দেবে মেশিনটি।
বিশেষ করে দারিদ্র্য সীমার নিচে বসবাসকারীদের জন্য আবিষ্কৃত গিরোডোরার আবিষ্কারকরা আশা করছেন, মেশিনটি সুলভমূল্যের হওয়ায় সবার ব্যবহার উপযোগী হিসেবে বিবেচিত হবে। ব্যবহাকারীর সময় বাঁচিয়ে দেবে কয়েকগুণ।
লাতিন আমেরিকার পেরুতে চলছে মেশিনটির মাঠ পর্যায়ের পরীক্ষা।
গিরাডোরার ব্যবহার নির্দেশনা মতে, স্থানান্তরযোগ্য এই মেশিনে সাবান ও পানি ভর্তি করে সেখানে কাপড়চোপড় দিয়ে ঢাকনা দিয়ে দিতে হবে। এরপর মেশিনটির ওপর একেবারে বিশ্রাম আসনের মতো বসে স্প্রিংয়ের প্যাডেলটিতে চাপ দিতে হবে।
প্যাডেল চালানোর কারণে স্থূলকায় ব্যক্তিদের ব্যায়ামও হয়ে যাবে মেশিন চালানোর সময়-এমনটি বলাই বাহুল্য।
মেশিনটির ব্যবহার বাড়লে কাপড়-চোপড় কচলাতে গিয়ে পিঠ ও হাতের ব্যথা ধরিয়ে ফেলার কোনো কথা শুনতে হবে না। আর সুলভমূল্যে এটি ক্রয় করে নিম্ন ও নিম্ন মধ্যবিত্ত শ্রেণীর নারী-পুরুষরা ব্যবসাও করতে পারেন।
ডেল সোশ্যাল ইনোভেশন চ্যালেঞ্জ ও ইন্টারন্যাশনাল ডিজাইন এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড এই মেশিনটি উদ্ভাবনে সহযোগিতা করেছে।

শেয়ার