যশোরে অর্থনৈতিক শুমারি’র ডাটা এন্ট্রি প্রশিক্ষণের উদ্বোধন

prosikkhon
অর্থনৈতিক শুমারি ২০১৩-এর ডাটা এন্ট্রি কার্যক্রমের খুলনা বিভাগের ১০টি ও ফরিদপুর অঞ্চলের ৫টিসহ মোট ১৫টি জেলার মাষ্টার ট্রেইনারদের দু’দিন ব্যাপি প্রশিনের শুভ উদ্বোধন যশোর জেলা পরিসংখ্যান কার্যালয়ের সম্মেলন কে অনুষ্ঠিত হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা বিভাগীয় পরিসংখ্যান কার্যালয়ের যুগ্ম-পরিচালক মীর হোসেন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন যশোর জেলা পরিসংখ্যান কার্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক মুহাম্মদ মিঝানুর রহমান হাওলাদার। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) এর সেন্সাস উইং এর পরিসংখ্যান কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর অর্থনৈতিক শুমারি ২০১৩-এর ডাটা এন্ট্রি সফটওয়্যারটি একটি ইন্টারনেট ভিত্তিক ওয়েব এনাবেল্ড (বিন বহধনষবফ) সফটওয়্যার। বিভাগীয় পরিসংখ্যান কার্যালয়ের যুগ্ম-পরিচালক মীর হোসেন তার বক্তব্যে বলেন, এই সফটওয়্যার চালনার জন্য কম্পিউটার সম্পর্কিত সাধারণ জ্ঞানসহ কোন একটি ইন্টারনেট ব্রাউজারসহ মাইক্রোসফট ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার, গুগল ক্রোম অথবা মজিলা ফায়ারফক্স চালনার পূর্বজ্ঞান থাকা জরুরি। এই সফটওয়্যার-এর একটি অংশ মাইক্রোসফট উইন্ডোজ ভিত্তিক, সুতরাং উইন্ডোজ সম্পর্কেও সম্যক জ্ঞান থাকা প্রয়োজন বলে তিনি অভিমত দেন। প্রশ্নপত্রের তথ্য পূরণের বিভিন্ন অংশে বাংলা ও ইংরেজির ব্যবহার রয়েছে। বাংলায় লেখার জন্য ইউনিকোড সমর্থনকারী যেকোন বাংলা সফটওয়্যার যেমন অভ্র, বিজয় ইত্যাদি ব্যবহার করা যাবে। ডাটা এন্ট্রির েেত্র কম্পিউটার ব্যবহার করে বাংলা লেখার পূর্বজ্ঞান থাকা অত্যাবশ্যক। সফটওয়্যারটি ইন্টারনেট ভিত্তিক ও ওয়েব এনাবেল্ড (বিন বহধনষবফ) হওয়ায় এটি ইন্টারনেট সমৃদ্ধ যেকোন কম্পিউটার থেকে চালানো যায়। সফটওয়্যারটি অন্যান্য ওয়েব এনাবেল্ড সফটওয়্যার-এর মত সহজে চালনা যোগ্য, তাছাড়া এটি বাংলা ভাষায় রচিত হওয়ার কারণে এর সার্বিক পরিচালনা আরও সহজ হয়েছে। এর মাধ্যমে অনলাইন ও অফলাইনে ডাটাএন্ট্রি করা যাবে। ইউনিয়ন তথ্য সেবা কেন্দ্রের (ইউআইএসসি) মাধ্যমে অর্থনৈতিক শুমারি ২০১৩ এর ডাটা এন্ট্রি’র কার্যক্রম আগামী ৩১ মার্চ ২০১৪ তারিখের মধ্যে সম্পন্ন হবে। সবশেষে প্রধান অতিথি অর্থনৈতিক শুমারি ২০১৩ এর ডাটা এন্ট্রির কাজে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। প্রেসবিজ্ঞপ্তি

SHARE