বাইকে বসিয়েই কবর!

bike
বাংলানিউজ॥ তারুণ্য থেকে বার্ধক্য। প্রায় পুরো জীবনটাই শখের বাইকটি সঙ্গে নিয়ে কাটিয়েছেন তিনি। তাই মৃত্যকালে জীবনসঙ্গী ‘হার্লি ডেভিডসনের’ পুরোনো মডেলের সেই বাইকটি ধরায় রেখে যেতে চাননি বিলি স্টানলি। মৃত্যুর আগে ছেলে-মেয়েদের বলে গেছেন তার সঙ্গে যাতে কবরে বাইকটিও দিয়ে দেওয়া হয়। ছেলে মেয়েরা বাবার শেষ ইচ্ছানুযায়ী করেছেনও তাই।
৮২ বছর বয়সী স্টানলি যুক্তরাষ্ট্রের ওহিও নগরীর বাসিন্দা ছিলেন। গত ২৬ জানুয়ারি রোববার তিনি ক্যান্সারে মারা যান। গতকাল শুক্রবার তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠান হয়।
মৃত্যুর আগে তিনি পরিবারকে তার ইচ্ছার কথা জানান। চার সন্তানের জনক স্টানলি বলেন, আমি বাইকটি চালানো ছাড়তে পারব না। তাই মৃত্যুর পরও যাতে বাইক চালাচ্ছি এমনভাবে তাকে কবর দেওয়া হয় সেজন্য সবাইকে অনুরোধ করেন।
১৯৬৭ সালের ইলেকট্রা গ্লিড ক্রজার বাইক ছিল ওটি। জীবদ্দশায় যেভাবে বাইক চালাতেন ঠিক সেভাবেই তাকে মৃত্যুর পর বসিয়ে দেওয়া হয়েছে সেই বাইকটিতে। এজন্য কফিন সদৃশ ‘প্লেক্সিগ্লাস কাসবেট’ ব্যবহার করা হয়েছে।
তারপর শেষবারের মতো তাকে রাস্তায় ঘুরানো হয়। ঘটনা শুনে অনেকে দুর-দূরান্ত থেকে অনেকে স্টানলির মৃতদেহ দেখতে আসেন।
তার পড়নে ছিল কালো লেদার, মাথায় হেলমেট। দেহের পেছনে দিকে বেল এবং ব্যাক ব্রেস দিয়ে তাকে বসিয়ে দেওয়া হয়েছে সুন্দরভাবে।
স্টানলির দুই সন্তানের কয়েক বছরের সাধনায় ওই বিশেষ ‘কফিন’ তৈরি হয়। এজন্য তারা কাঠ ও ধাতব বস্তু ব্যবহার করেন।

SHARE