নিজামী-বাবর কাশিমপুর কারাগারে

Ctg
সমাজের কথা ডেস্ক॥
১০ ট্রাক অস্ত্র মামলায় ফাঁসির দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত মতিউর রহমান নিজামী ও লুৎফুজ্জামান বাবরকে চট্টগ্রাম থেকে গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারে স্থানান্তর করা হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যায় তাদের কাশিমপুর কারাগারের কনডেম সেলে নেয়া হয় বলে কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

একই দণ্ডে দণ্ডিত এনএসআইয়ের সাবেক দুই প্রধান রেজ্জাকুল হায়দার চৌধুরী ও আবদুর রহিমকেও ঢাকায় পাঠানো হয় বলে চট্টগ্রামের কারাকর্মকর্তারা জানান।

জামায়াতে ইসলামীর আমির নিজামী, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবরের বিরুদ্ধে ঢাকায় মামলা রয়েছে।নিজামীর বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের মামলার বিচার চলছে।

বাবরসহ অন্য তিনজন ২১ অগাস্ট গ্রেনেড হামলার মামলার আসামি। আগামী ৪ ফেব্রুয়ারি এই মামলার শুনানির দিন ধার্য রয়েছে।

কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারের তত্ত্বাবধায়ক মো. আব্দুর রাজ্জাক জানান, চট্টগ্রাম থেকে আসার পর সন্ধ্যা ৭টার দিকে মতিউর রহমান নিজামীকে এ কারাগারের কনডেম সেলে নেয়া হয়।

এছাড়া, কাশিমপুরস্থ ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার-১-এর কারাধ্যক্ষ মো. আব্দুল কুদ্দুস জানান, সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে লুৎফুজ্জামান বাবরকে এই কারাগারে নেয়া হয়েছে।

দুইটি আলাদা মাইক্রোবাসে করে তাদের চট্টগ্রাম থেকে কাশিমপুর আনা হয়। তাদের গায়ে ছিল নীল-সাদা ডোরার কয়েদির পোশাক।

গত বুধবার (২৯ জানুয়ারি) এ দুজনকে এ কারাগার থেকেই চট্টগ্রামে পাঠানো হয়েছিল। চট্টগ্রামের আদালতেই ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলায় তাদের সাজা হয়।

গত বৃহস্পতিবার দুপুরে রায় হওয়ার পর তাদের চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের কনডেম সেলে রাখা হয় বলে জানান চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের জ্যেষ্ঠ কারারক্ষক মো. ছগির মিয়া।

চট্টগ্রামের কারারক্ষক রফিকুল কাদের বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, সকাল পৌনে ১১টার দিকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে চারজনকে নিয়ে ঢাকার পথে গাড়ি রওনা হয়।

গত বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের আদালত নিজামী,বাবর, রেজ্জাকুল ও রহিমসহ ১৪ জনকে ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলায় মৃত্যুদণ্ড দেয়। এদের মধ্যে দুজন পলাতক রয়েছেন।

১৪ জনের মধ্যে কারাবন্দি ১২ জনকে সেদিন থেকে চট্টগ্রাম কারাগারের কনডেম সেলে রাখা হয়েছিল। এখন চট্টগ্রামের কারগারে থাকছেন আটজন।

SHARE