বাংলাদেশ ভারত চীন মায়ানমার কানেকটিভিটি চূড়ান্ত

19
বাংলানিউজ ॥
বাংলাদেশ ভারত চীন মায়ানমার (বিসিআইএম) কানেকটিভিটি চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ ও ভারতের হাইকমিশনার পঙ্কজ সরণ।
বৃহস্পতিবার দুপুরে বানিজ্যমন্ত্রণালয়ে এক বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তারা এ কথা জানান।
বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে তোফায়েল আহমেদ বলেন, বিসিআইএম কানেকটিভিটির বিষয়টি অনেক দূর এগিয়েছে। এটি এখন চুড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে।
তিনি বলেন, শুধু এখানে নয় বিশ্বের অন্যান্য দেশের মধ্যে কানেকটিভিটি রয়েছে। পাকিস্তান-আফগানিস্তান, ইউরোপে কানেকটিভিটি রয়েছে। তবে আমরা কেন কানেকটিভিটিতে যুক্ত হতে পারবো না?
তোফায়েল আহমেদ বলেন, কানেকটিভিটি করতে না পারলে বাণিজ্য ততটা সম্প্রসারিত হবে না।
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কানেকটিভিটির ক্ষেত্রে মায়ানমার পর্যন্ত রাস্তা গেলে এটাকে আমরা করিডোর বলবো না। এটি হবে কানেকটিভিটি। আমরা সার্কভুক্ত দেশগুলোকে নিয়ে কানেকটিভিটি করতে চাই। চীন, ভারত, বাংলাদেশ, মায়ানমারের সঙ্গে কানেকটিভিটি হলে আমাদের রপ্তানি বাড়বে। পরবর্তীতে আমরা আসিয়ানের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার কথা ভাবছি।
বৈঠক শেষে বেড়িয়ে যাওয়ার সময় কানেকটিভিটি বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে ভারতীয় হাইকশিনার পঙ্কজ সরণ সাংবাদিকদের বলেন, আগামী দুই মাসের মধ্যে এ বিষয়ে একটা অবস্থানে যেতে পারবো।
তিনি বলেন, টেলিকমিউনিকেশন, ট্রেন ও রাস্তায় যোগাযোগটাই কানেকটিভিটি। এই কানেকটিভিটির জন্য অবকাঠামোগত উন্নয়ন করতে হবে। বিসিআইএম কানেকটিভিটি হলে সবাই সুবিধা পাবেন।
বৈঠকের বিষয়বস্তু প্রসঙ্গে তোফায়েল আহমেদ ও পঙ্কজ সরণ বলেন, আমরা বাংলাদেশ-ভারত বাণিজ্য সম্প্রসারণ বিষয়ে আলোচনা করেছি। বাণিজ্য সম্প্রসারনের ক্ষেত্রে যেসব প্রতিবন্ধকতা রয়েছে সেগুলো চিহ্নিত করার পাশাপাশি কিভাবে এগুলো সমাধান করা যায় তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

SHARE