সুপ্রিম কোর্টে সমাবেশ না করতে একমত আইনজীবীরা

Highcourt
সমাজের কথা ডেস্ক॥ দুই দিন সংঘাতের পর সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় সভা-সমাবেশ না করতে একমত হয়েছে বিএনপি ও আওয়ামী লীগপন্থী আইনজীবীরা।
মঙ্গলবার বিকালে সুপ্রিম কোর্টে প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেনের সঙ্গে বৈঠকে দুই দলের আইনজীবীদের মধ্যে এ মতৈক্য হয়।
প্রায় এক ঘণ্টার বৈঠক শেষে বিকাল পৌনে ৫টার দিকে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক শ ম রেজাউল করিম বলেন, “সুপ্রিম কোর্টের মূল ফটকসহ আদালত অঙ্গনে কোনো ধরনের সভা-সমাবেশ না করার বিষয়ে আমরা একমত হয়েছি।”
তবে পেশাগত বিষয়সহ কোনো কারণে সভা-সমাবেশ করতে হলে তা আইনজীবী সমিতির ভবনে করতে হবে। মূল ফটকে কোনো সমাবেশ করা যাবে না। আর মিছিলসহ বাইরে যেতে চাইলে মাজার ফটক দিয়ে যেতে হবে।
বৈঠকে উপস্থিত বিএনপিপন্থী আইনজীবী ও সমিতির সাবেক সম্পাদক মো. বদরুদ্দোজা বাদল বলেন, “সুপ্রিম কোর্টের মূল ফটক এলাকায় সভা-সমাবেশ না করার একটি প্রস্তাব আসলে আমরা তাতে সম্মতি দিয়েছি।”
বৈঠকে অন্যদের মধ্যে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ জে মোহাম্মদ আলী উপস্থিত ছিলেন।
আগামী ৫ জানুয়ারির ভোট রুখতে রোববার বিরোধীদলের ঢাকা অভিযাত্রা পরবর্তী সমাবেশে যোগ দিতে সুপ্রিম কোর্ট থেকে একটি মিছিল বের করার চেষ্টা করেন বিএনপি-জামায়াতপন্থী আইনজীবী। এ সময় ফটকের বাইরে থেকে জলকামান ও সাউন্ড গ্রেনেড ব্যবহার করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় পুলিশ।
এরপরেও বিরোধী দল সমর্থকরা বিক্ষোভ চালিয়ে যেতে থাকলে এক পর্যায়ে তাদের ধাওয়া দিয়ে সুপ্রিম কোর্টের ফটক খুলে আদালত চত্বরে ঢুকে পড়ে সরকার সমর্থকরা। তাদের হামলায় বিরোধী দল সমর্থক তিন আইনজীবী আহত হন। পরদিনও সুপ্রিম কোর্টের ফটকে বিক্ষোভরত বিরোধী দলের আইনজীবীদের সঙ্গে যুব মহিলা লীগ কর্মীদের ঢিল ছোড়াছুড়ি হয়।

শেয়ার