ফিরে দেখা: বলিউড ২০১৩

hrithik
সমাজের কথা ডেস্ক॥
বলিউডের জন্য সত্যিকার অর্থেই এক ঘটনাবহুল বছর ছিল ২০১৩। বক্স অফিসে যেমন রেকর্ড গড়েছে বেশ কয়েকটি সিনেমা, তেমনি নানা ঘটনা আর রটনায় বলিউড ভরপুর ছিল সারাটি বছর।

‘ইয়ে জাওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’, ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’, ‘কৃষ থ্রি’ এবং বছরশেষে ‘ধুম থ্রি’র মতো সিনেমা মাতিয়েছে বক্স অফিস। ওদিকে জিয়া খানের আত্মহত্যা, শাহরুখ-সালমানের পুনর্মিলন, ক্যাটরিনা-রণবীর ছবি নিয়ে স্ক্যান্ডাল, হৃত্বিক রোশানের বিয়েবিচ্ছেদের মতো খবর বছরজুড়ে সরগরম রেখেছে মিডিয়াকে। এরই মধ্যে ঋতুপর্ণ ঘোষ, প্রাণ, মান্না দে, ফারুক শেখের মৃত্যু রেখে গেছে অপূরণীয় ক্ষতির চিহ্ন।

সেই হিসেবে বলিউডে ঘটে যাওয়া বিদায়ী বছরের সব ঘটনাকে যদি একত্রিত করা হয়, তবে নিঃসন্দেহে একটি মসলাদার সিনেমা বানানো সম্ভব।

রেকর্ডের বছর ২০১৩

বছরের শুরুতেই বক্স অফিসে উত্তেজনা ছড়িয়েছে বহুল প্রতীক্ষিত সিনেমা ‘রেইস টু’। দীপিকা পাড়ুকোন,সাইফ আলি খান, জন আব্রাহামের মতো একাধিক তারকার সমন্বয় এই অ্যাকশন থ্রিলারই বিদায়ী বছরের প্রথম একশ’ কোটি আয় করা সিনেমা।

অবশ্য তখনও কেউ ভাবেনি, বক্স অফিস রেকর্ড গড়ার বছর হবে ২০১৩।

৩১ মে মুক্তি পায় ‘কামিং অফ এজ’ ধাঁচের সিনেমা ‘ইয়ে জাওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’। নতুন ধরনের কাহিনির জন্য বক্স অফিসে ‘বাম্পার স্টার্ট’ হয় রণবীর কাপুর এবং দীপিকা পাড়–কোন অভিনীত সিনেমার। এক মাসের মধ্যেই ব্লকবাস্টার হিট ওই সিনেমা চালু করে সর্বোচ্চ আয়ের নতুন রেকর্ড। একশ’ কিংবা দেড়শ’ নয়, দুশ’ কোটিরও বেশি আয় করা সিনেমাটি শুধু ভারতেই নয় যুক্তরাষ্ট্রের টপচার্টেও জায়গা করে নিয়েছিল বেশ কয়েক সপ্তাহ।

১৯৯০ সালের ব্লকবাস্টার সিনেমা ‘আশিকি’র সিকুয়েল ‘আশিকি টু’ নিয়ে ২৩ বছর পর ফেরেন নির্মাতারা। উঠতি দুই অভিনয়শিল্পী শ্রদ্ধা কাপুর আর আদিত্য রয় কাপুরের অভিনয়ে এই রোমান্টিক ড্রামা সিনেমা বিশ্বজুড়ে ব্যাপক সমাদৃত হয়। সেই সঙ্গে নাম লেখায় একশ’ কোটির ক্লাবে।

পরবর্তীতে সিকুয়েলের খাতায় ১০০ কোটি আয় করা সিনেমা হিসেবে আরও যুক্ত হয় অ্যাডাল্ট কমেডি ‘গ্র্যান্ড মাস্তি’। ২০০৪ সালের সিনেমা ‘মাস্তি’র ওই সিকুয়েলের একমাত্র সম্বল ছিল এর রসাত্মক কাহিনি।

বলিউডের অন্যতম গুণী সদস্য ফারহান আখতারের বহুল প্রতীক্ষিত সিনেমা ‘ভাগ মিলখা ভাগ’ মুক্তি পায় এ বছর। ভারতীয় দৌড়বিদ মিলখা সিংয়ের চরিত্রে তার অভিনয় সমালোচকদের সমর্থন পাওয়ার পাশাপাশি বক্স অফিসে করেছে বাজিমাত। সুপারহিট সিনেমা ‘ভাগ মিলখা ভাগ’ অল্পের জন্য দুশ’ কোটিতে পৌঁছাতে না পারলেও একশ’ কোটির ক্লাবে সহজেই স্থান করে নিয়েছে।

তবে ঈদুল ফিতরে মুক্তি পাওয়া শাহরুখ খান আর দীপিকা অভিনীত ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’ বদলে দেয় সব হিসেব নিকেশ। প্রায় চারশ’ কোটির কাছাকাছি আয় করে ‘অল টাইম ব্লকবাস্টার’-এর খেতাব অর্জন করে ওই সিনেমা।

বিদায়ী বছরের সেরা ১০ ব্যবসাসফল সিনেমার তালিকায় আরও আছে সুপারহিরো কৃষের কামব্যাক মুভি ‘কৃষ থ্রি’। পর্দা কাঁপিয়ে আরও বড় ঝড় তুলতে হৃত্বিক রোশান এ বছর এসেছিলেন কৃষের বেশে। বিবেক ওবেরয় এবং কঙ্গনা রানাউতের সঙ্গে মিলে দুর্দান্ত অভিনয় করে হাতিয়ে নিয়েছেন একশ’ কোটিরও বেশি।

অনেকদিন পর এ বছর সঞ্জয় লীলা বনসালি বাণিজ্যিক ধারার সফল একটি সিনেমা উপহার দিয়েছেন। রনভির সিংয়ের সঙ্গে দীপিকার পর্দা রসায়ন এবং অসাধারণ কাহিনির এক অন্যন্য সমন্বয় ছিল ‘গোলিও কি রাসলীলা: রাম-লীলা’। ভারত এবং সারাবিশ্বে ১০০ কোটি রুপির উপরে ব্যবসা করেছেন সিনেমাটি।

তবে যথারীতি বছর শেষে ‘মিস্টার পারফেকশনিস্ট’ আমির খান হাজির হয়েছেন বক্স অফিসে ঝড় তুলতে। ২০ ডিসেম্বর মুক্তি পাওয়া ‘ধুম থ্রি’ এরমধ্যেই গড়েছে দ্রুততম সময়ে ১০০ কোটি রুপি আয়ের রেকর্ড। সর্বকালের সর্বোচ্চ আয়ের রেকর্ডও এখন ভাঙার পথেই ‘ধুম’ ফ্র্যাঞ্চাইজির সর্বশেষ ওই সিনেমা।

জিয়া খানের আত্মহত্যা

বছরের অন্যতম চাঞ্চল্যকর ঘটনা ছিল অভিনেত্রী জিয়া খানের আত্মহত্যা। ৩ জুন মুম্বাইয়ের জুহুতে নিজের ফ্ল্যাটে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় জিয়ার মৃতদেহ। সঙ্গে পাওয়া যায় একটি সুইসাইড নোট। সন্দেহের তীর চলে যায় তার প্রেমিক সুরাজ পাঞ্চলির দিকে।

সুরাজ পাঞ্চলি, অভিনেতা আদিত্য পাঞ্চলির পুত্র। প্রাথমিকভাবে ২১ বছর বয়সী সুরাজকে সন্দেহভাজন আসামি হিসেবে গ্রেফতার করা হয়।

২৩ দিন কারাগারে থাকার পর বের হয়ে সুরাজ মিডিয়াকে জানান জিয়ার সঙ্গে তার সম্পর্কের কথা। ক্যারিয়ারের ক্রমশ পতনের কারণে হতাশ এবং আবেগপ্রবণ জিয়া মানসিকভাবে খুবই ভেঙে পড়েছিলেন। তার ভাষ্য অনুযায়ী, এমন অবস্থায় সুরাজের সঙ্গে বিচ্ছেদকে মেনে নিতে পারেননি তিনি। ফলাফল- আত্মহত্যা।

তবে জিয়ার এই অকাল মৃত্যুর রহস্য প্রতিনিয়ত নিচ্ছে নতুন মোড়। ইতোমধ্যেই এই চাঞ্চল্যকর মৃত্যু নিয়ে সিনেমা বানানোর কথা ভাবছেন বলিউডের গুটিকয়েক নির্মাতা।

টিনসেলের নতুন ‘নায়ক’ দীপিকা

দীপিকার জন্য ‘রেইস টু’ ছিল সাফল্যের পথে প্রথম পদক্ষেপ। এরপর ‘ইয়ে জাওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’ সিনেমায় সাবেক প্রেমিক রণবীর কাপুরের সঙ্গে জুটি বাঁধেন দীপিকা। দুজনের পর্দা রসায়ন দেখে মিডিয়াতে শুরু হয় জোর গুঞ্জন, আবারও নাকি প্রেম করছেন এই জুটি। তবে পুনর্মিলনের খবর সত্যি না হলেও পর্দায় দুজনের প্রেম এবং ভিন্নধর্মী কাহিনির জন্য ব্যাপক সফল হয় ‘ইয়ে জাওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’। ফল স্বরূপ দীপিকার ঝুলিতে জমা হয় দুটি হিট সিনেমা।

সাফল্যের পথে দীপিকার এই পথচলা তখনও ছিল অনেকটাই বাকি। বছরের শেষার্ধে মুক্তি পায় দীপিকা-শাহরুখ অভিনীত ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’। জনপ্রিয় এই পর্দা জুটির অভিনয় এবার বলিউডের ইতিহাসের সর্বকালের সব রেকর্ড ভেঙে সৃষ্টি করে নতুন রেকর্ড। প্রায় চারশ’ কোটি আয় করা সিনেমা ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’এর নায়িকা হিসেবে দীপিকার মূল্য কেবল চড়তেই থাকে।

দুমাস বাদেই নভেম্বরে মুক্তি পেয়েছে দীপিকার চতুর্থ এবং এ বছরের শেষ সিনেমা ‘গোলিও কি রাসলীলা: রাম-লীলা’। সহশিল্পী রনভির সিংয়ের সঙ্গে দীপিকার চমৎকার রসায়ন সিনেমাটি মুক্তির অনেক আগে থেকেই চোখে পড়েছে সবার। কখনও পার্টিতে ঘনিষ্ঠ হওয়া, কখনও একসঙ্গে ডিনার ডেট।

এই দুই সহশিল্পীর রসায়ন পর্দার বাইরে কতটা গভীর, তা বুঝতে বাকি থাকে না কারও। এরপর যখন মুক্তি পায় সিনেমার ট্রেইলার, তখন তাদের পর্দা রসায়ন সম্পর্কে কিছুটা হলেও ধারণা পেয়েছে দর্শক। আর তাই সিনেমাটি দেখার জন্য আগ্রহ তখন সবার তুঙ্গে। তার উপর সঞ্জয় লীলা বনসালির পরিচালনা, সব মিলিয়ে বেশ বড় ধরনের চমক আশা করেছে সবাই। আর সিনেমাটি মুক্তির পর শুধু বলিউডপ্রেমীদের প্রত্যাশাই পূরণ করেনি, হিন্দি সিনেমাকে দিয়েছে এক শৈল্পিক নিদর্শন। সেই সঙ্গে দীপিকার ঝুলিতে পড়েছে আরও একটি একশ’ কোটির সিনেমা।

বলিউডের ইতিহাসে এখন দীপিকাকে ধরা হচ্ছে সবচেয়ে ব্যবসাসফল অভিনেত্রী হিসেবে। যেখানে টিনসেলের অবধারিত একটি সত্য হল, যে কোনো সিনেমার ব্যবসায়িক সাফল্যের জন্য অভিনেতাদের উপরই নির্ভর করে থাকেন নির্মাতারা। সেখানে অভিনেত্রী হিসেবে দীপিকা এখন যোগ দিয়েছেন রাঘব-বোয়ালদের দলে। আর তাই বক্স অফিস বিশ্লেষকদের মতে, দীপিকা হলেন টিনসেলের নতুন ‘নায়ক’।

শাহরুখ-সালমানের ‘পুনর্মিলন’

২০১৩ সালটি স্মরণীয় করে রাখার জন্য আসলে এই একটি মাত্র ঘটনাই যথেষ্ট। বলিউডের দুই জনপ্রিয় খান, পাঁচ বছরের ঠাণ্ডা লড়াইয়ের পর বুক মিলিয়ে করেছেন পুনর্মিলন! ব্যাপারটি শাহরুখ এবং সালমানের ভক্তদের জন্য যেমন ছিল অভাবনীয় ঘটনা, তেমনই পুরো টিনসেলে চলেছে এর চর্চা।

একসময় প্রায় একই সঙ্গে পা রেখেছিলেন বলিউডে, ছিলেন একে অপরের ঘনিষ্ঠ বন্ধু।

কিন্তু ২০০৮ সালে সালমানের সাবেক প্রেমিকা ক্যাটরিনা কাইফের জন্মদিনে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুরু হয় দুই খানের মনোমালিন্য। এরপর থেকেই দুজনের মুখ দেখাদেখি বন্ধ।

অবশেষে চলতি বছরের রমজান মাসে রাজনীতিবিদ বাবা সিদ্দিকির ইফতার পার্টিতে শাহরুখের দিকে আরও একবার বন্ধুত্বের হাত বাড়ান সালমান। জড়িয়ে ধরে দূর করেন সব শীতলতা।

তবে একে নতুন কোনো বন্ধুত্বের সূচনা না বললেই ভালো। কারণ বাইরে থেকে সবকিছু ঠিকঠাক হলেও, ভেতর থেকে দূরত্ব খুব একটা কমেনি দুই খানের।

ক্যাটরিনা-রণবীর স্ক্যান্ডাল

যে কোনো প্রশ্নের ‘পরিমিত’ উত্তর দেওয়ার জন্য সুপরিচিত অভিনেত্রী ক্যাটরিনা কাইফ। সাবেক প্রেমিক সালমান খানের সঙ্গে তার প্রেমের কথা যেমন এড়িয়ে চলেছিলেন বেশ কয়েক বছর, তেমনি কৌশলে এড়িয়ে গেছেন বর্তমান প্রেমিক রণবীর কাপুরের প্রসঙ্গও।

তবে চলতি বছর নিজেদের সিনেমার চাইতেও ব্যক্তিগত ঘটনার কারণে নিয়মিত শিরোনাম হয়েছেন ওই জুটি। জনপ্রিয় ওই জুটিকে নিয়ে সারা বছর ধরে শোনা যায় নানা গুজব-গুঞ্জন।

রণবীরের সঙ্গে তার প্রেমের গুজবের আগুনে আরও হাওয়া লাগে তখন, যখন খবর শোনা যায়, নিজের ৩১তম জন্মদিনে ক্যাটরিনার সঙ্গে আংটি বদল করবেন রণবীর! অবশ্য এই গুজবকেও বেশ কৌশলের সঙ্গে এড়িয়ে গেছেন এই প্রেমিক জুটি।

কিন্তু তাদের সব কৌশল বৃথা গেল যখন রণবীর কাপুরের সঙ্গে ক্যাটরিনার অন্তরঙ্গভাবে ছুটি কাটানোর মুহূর্ত ক্যামেরাবন্দি করল মিডিয়া। স্পেনের এক সৈকতে বিকিনি পরা ক্যাটরিনার সঙ্গে রণবীরের ছবি দেখে কারও বুঝতে বাকি রইল না, ডুবে ডুবে ঠিকই জল খাচ্ছেন দুজন।

এরপর ঘটে একের পর এক ঘটনা। ব্যক্তিগত জীবনে ‘অনাধিকার চর্চা’ করার অভিযোগে সাংবাদিকদের একটি খোলা চিঠি দিলেন ক্যাটরিনা। যেখানে প্রকাশ পায় একরাশ ক্ষোভ।

ওদিকে ক্ষুব্ধ ক্যাটরিনাকে কোনো প্রশ্ন করার সাহস না পাওয়ায় রণবীরকে ছেঁকে ধরল মিডিয়া। শেষমেষ রণবীর স্বীকার করলেন, তার জীবনের খুব গুরুত্বপূর্ণ একজন মানুষ ক্যাটরিনা। তবে তারা প্রেম করছেন কি না, সে বিষয়ে এখনই কিছু জানাতে রাজি নন কেউই।

সালমানবিহীন বলিউড

২০১৩ সালে বেশ কয়েকটি সিনেমা বাণিজ্যিকভাবে রেকর্ড গড়েছে, কিন্তু এই মহোৎসবে অনুপস্থিত ছিলেন সালমান খান। এ বছর কোনো সিনেমাই মুক্তি পায়নি সালমানের। অবশ্য সিনেমা মুক্তি না পেলেও নিয়মিত সংবাদে ছিলেন তিনি।

আসছে ২০১৪ সালের শুরুতেই মুক্তি পাবে তার সিনেমা ‘জয় হো’। এই সিনেমার জন্য চলতি বছরে তার ভক্তদের এবং মিডিয়ার জল্পনাকল্পনার কোনো শেষ ছিল না। শাহরুখের সঙ্গে সম্পর্কের দূরত্ব দূর করার পর সংবাদমাধ্যমগুলোর আলোচনার অন্যতম কেন্দ্রবিন্দুও ছিলেন সালমান।

হৃত্বিক রোশানের অস্ত্রোপচার এবং সুজানের সঙ্গে বিচ্ছেদ

সুপারহিরো ‘কৃষ’-র রূপে অনেকদিন পর এ বছর বড়পর্দায় ফিরে এসেছিলেন হৃত্বিক রোশান। কিন্তু ক্যারিয়ারের চাইতেও তিনি বেশি আলোচিত হয়েছেন ব্যক্তিগত কারণে।

‘কৃষ থ্রি’ সিনেমার কিছু স্টান্ট পারফর্ম করতে গিয়ে মাথায় আঘাত পাওয়ার পর অস্ত্রোপচারের সাহায্য নিতে হয় হৃত্বিককে। প্রথমবার সফল অস্ত্রোপচারের কয়েক মাস পর আবারও ফিরে আসে প্রচণ্ড মাথাব্যথা। এরপর বছরের শেষদিকে মস্তিষ্ক পরীক্ষা করাতে আরও একবার আমেরিকা পাড়ি জমান হৃত্বিক। কিন্তু তখনও কেউ জানত না, বছর শেষে সবচেয়ে হতাশাব্যঞ্জক খবরটি শোনাবেন তিনি।

‘কৃষ থ্রি’র মুক্তির পরপরই মিডিয়াতে উঠেছিল জোর গুঞ্জন, ঘর ভাঙছে হৃত্বিকের। স্ত্রী সুজানের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো যাচ্ছে না তার। কিন্তু তখন এই খবর গুজব হিসেবেই উড়িয়ে দিয়েছিল রোশান পরিবার।

অবশেষে ১৪ ডিসেম্বর নিজের ঘর ভাঙার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিলেন হৃত্বিক। জানালেন, স্ত্রী সুজানের সঙ্গে ১৩ বছরের দাম্পত্য জীবনের অবসান ঘটাতে যাচ্ছেন তিনি। এই ঘরভাঙার পিছনে অর্জুন রামপালের সঙ্গে সুজানের বন্ধুত্বকে জড়িয়েও মিডিয়ায় খবর প্রকাশিত হয়। তবে ওই গুজবকে অস্বীকার করেন অর্জুন।

যারা চলে গেলেন চিরতরে

২০১৩ সালে বলিউড হারিয়েছে এমন কিছু মানুষ, যাদের অভাব হয়তো আগামী শত বছরেও পূরণ হবে না। তেমনই একজন হলেন গুণী নির্মাতা ঋতুপর্ণ ঘোষ।

মূলত কলকাতার সিনেমার নির্মাতা হিসেবে খ্যাত ঋতুপর্ণ বলিউডেও ছিলেন ব্যাপক সমাদৃত। অমিতাভ বচ্চন, ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন, বিপাশা বসু এবং অজয় দেবগনের মতো অভিনেতার সঙ্গে বেশ কয়েকটি সিনেমায় কাজ করেছেন ঋতুপর্ণ। ৩০ মে নিজ বাসায় হার্ট অ্যাটাকে মারা যান ঋতুপর্ণ। তার বয়স হয়েছিল ৪৯ বছর।

বলিউডের অন্যতম প্রবীণ অভিনেতা প্রাণের দেহাবসান হয়েছে এ বছর। দীর্ঘ সময় অসুস্থ থাকার পর ১২ জুলাই ৯৩ বছর বয়সে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন একসময়ের জনপ্রিয় এই অভিনেতা।

তবে এ বছরের সবচেয়ে দুঃখজনক সংবাদ ছিল গায়ক মান্না দের মৃত্যু। অসাধারণ গুণী এই গায়ক এবং গীতিকারের মৃত্যুতে কেঁদেছে সমগ্র উপমহাদেশ।

বেশ কিছুদিন ধরেই ফুসফুসের জটিলতায় ভুগছিলেন মান্না দে। শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটায় ২৩ অক্টোবর তাকে ব্যাঙ্গালুরুর এক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবশেষে ৯৪ বছর বয়সে না ফেরার দেশে চলে যান এই কিংবদন্তি গায়ক।

বছরশেষের আরেকটি দুঃসংবাদ হল সিনিয়র অভিনেতা ফারুক শেখের মৃত্যু। ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত ওই অভিনেতার মৃত্যু হয় ২৮ ডিসেম্বর সকালে। দুবাইয়ে ছুটি কাটাতে গিয়ে হার্ট অ্যাটকে মারা যান তিনি।

নতুন মুখ সুশান্ত সিং রাজপুত

ছোটপর্দার দর্শকদের মন জয় করার পর এবছর বড়পর্দায় নিজের ভাগ্য পরীক্ষা করতে আসেন অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত। চলতি বছর মুক্তি পেয়েছে তার দুটি সিনেমা। তিন বন্ধুর কাহিনি ‘কাই পো ছে’ বছরের শুরুতেই ব্যাপক গ্রহণযোগ্যতা পায়।

এরপর তিনি অভিনয় করেন পরিনীতি চোপড়ার সঙ্গে ‘শুদ্ধ দেসি রোমান্স’-এ। ইয়াশ রাজ ফিল্মসের ব্যানারে কমেডি ধাঁচের এই সিনেমা সমালোচক এবং দর্শক দুই মহলেই সুশান্তের আলাদা খ্যাতি এনে দেয়।

২০১৪ সালে সুশান্তকে দেখা যাবে আমির খানের সঙ্গে ‘পিকে’ সিনেমায়।

শেয়ার