আরাফাতের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে: রাশিয়া

arafat
সমাজের কথা ডেস্ক॥ ফিলিস্তিনের সাবেক নেতা ইয়াসির আরাফাতের মৃত্যু তেজস্ক্রিয় বিষক্রিয়ায় নয় বরং স্বাভাবিক কারণে হয়েছে।
রাশিয়া বৃহস্পতিবার একথা জানায়। তবে এ ব্যাপারে তদন্ত চলতে থাকবে বলে জানিয়েছেন মস্কোয় নিযুক্ত ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূত। রাশিয়ার সংবাদ সংস্থাগুলো এ খবর দিয়েছে।
রাশিয়ার ফরেনসিক বিভাগ ‘দ্য ফেডারেল মেডিকো-বায়োলজিক্যাল এজেন্সি’ প্রধান ভ্লাদিমির উইবারের উদ্ধৃতি দিয়ে ইন্টারফ্যাক্স বার্তা সংস্থা বলেছে, “ইয়াসির আরাফাত তেজস্ক্রিয়তার প্রভাবে মারা যাননি। স্বাভাবিক কারণে তার মৃত্যু হয়েছে”।
বিষাক্ত পোলোনিয়াম প্রয়োগে আরাফাতকে হত্যার অভিযোগ ওঠার পর গত বছর কবর খুঁড়ে তার দেহের নমুনা পরীক্ষার জন্য নেয় সুইজারল্যান্ড, ফ্রান্স এবং রাশিয়ার ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা।
সুইজারল্যান্ডের বিশেষজ্ঞরা নমুনা পরীক্ষার পর গত মাসে আরাফাতের ব্যবহার্যে বিষাক্ত পোলোনিয়ামের উপস্থিতি পাওয়ার কথা জানান। তবে এ থেকেই আরাফাতের মৃত্যু হয়েছে কিনা সে ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট কোনো উপসংহার টানতে পারেননি তারা।
এরপর এ মাসের শুরুর দিকে ফ্রান্স তাদের তদন্ত প্রতিবেদনে জানায়, আরাফাতকে বিষ প্রয়োগে হত্যা করা হয়নি। আর এখন রাশিয়ার বিশেষজ্ঞরাও সেই একই কথাই বলছেন।
২০০৪ সালে অসুস্থ হয়ে ফ্রান্সের সামরিক হাসপাতালে ৭৫ বছর বয়সে মারা যান আরাফাত। বড় ধরনের স্ট্রোকে তার মৃত্যু হয় বলেই আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়েছিল সে সময়। কিন্তু ফরাসি ডাক্তারও তখনো আরাফাতের অসুস্থতার কারণ ধরতে পারেননি। লাশের ময়না তদন্তও হয়নি।
আরাফাতের বিধবা স্ত্রী পরবর্তীতে তার মৃত্যুকে রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড বলে অভিযোগ করেন। তাছাড়া, অনেক ফিলিস্তিনিও মনে করে ইসরায়েল তাকে হত্যা করেছে। তবে ইসরায়েল এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে।
মস্কোয় ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূত ফায়েদ মুস্তফা বলেছেন, রাশিয়া কিছু তথ্য পেলেও আরাফাতের মৃত্যুর কারণ উদঘাটনের তদন্ত এখনই শেষ হচ্ছে ন্।া
তদন্ত চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত এরই মধ্যে হয়েছে বলে রাষ্ট্রীয় আরআইএ বার্তা সংস্থাকে জানান তিনি।

শেয়ার