যশোরে কম. আবদুল হকের ১৮তম মৃত্যু বার্ষিকীর স্মরণ সভায় বক্তারা ॥ নির্বাচন গণতন্ত্রের পূর্ব শর্ত নয়, গণতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থা সুষ্ঠু নির্বাচনের গ্যারান্টি

comred hoq
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ কমিউনিস্ট আন্দোলনের প্রবাদ পুরুষ মহান বিপ্লবী কমরেড আবদুল হকের ১৮তম মৃৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে স্মরণ সভায় বক্তারা বলেছেন, “নির্বাচন গণতন্ত্রের পূর্ব শর্ত নয় বরং একটি গণতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থায় সুষ্ঠ নির্বাচনের গ্যারান্টি। বক্তারা বলেন, নির্বাচন প্রশ্নে সাম্রাজ্যবাদের দালালরা দেশব্যাপী সংঘাত সংঘর্ষ সৃষ্টির মাধ্যমে জনগণকে জিম্মি করে ফেলেছে। এই ক্ষমতা দখলের যে কামড়া-কামড়ি হচ্ছে তার মধ্যে শ্রমিক কৃষক জনগণের কোন স্বার্থ নেই। দ্রব্য মুল্যের উর্দ্ধগতি, বেকারত্ব, দলীয় ও রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস ও স্বৈরাচারী শাসনে বাংলাদেশের শ্রমিক-কৃষক-জনগণের জীবন দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে উল্লেখ করে বক্তারা এখন প্রয়োজন সাম্রাজ্যবাদ ও তার দালালদের বিরুদ্ধে শ্রমিক কৃষক জনগণের রাষ্ট্র, সরকার ও সংবিধান প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে আন্দোলন সংগ্রামে অগ্রসর হওয়া। অন্যত্থায় কৃষক শ্রমিক জনতার স্বার্থ সংরক্ষণ সম্ভব হবে না।
গতকাল বিকেলে জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট যশোর জেলা কমিটি এই স্মরণসভার আয়োজন করে। সংগঠনের জেলা সভাপতি আব্দুল হক’র সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জেলা সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান, সহ-সম্পাদক কামরুল হক লিকু, সদর থানার আহ্বায়ক প্রভাষক মাহবুবুর রহমান, চৌগাছা থানা আহ্বায়ক আব্দুল জলিল মাস্টার, ধ্র“বতারা সাংস্কৃতিক সংসদের জেলা আহ্বায়ক শাহরিয়ার আমির, কৃষক সংগ্রাম সমিতির জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক সমীরণ বিশ্বাস, ট্রেড ইউনিয়ন সংঘের জেলা সহ-সভাপতি হোটেল শ্রমিকনেতা আমির হোসেন, সাধারণ সম্পাদক কৃষ্ণা সরকার, এনডিএফ’র জেলা যুব সম্পাদক বিষ্ণা সরকার ও জাতীয় ছাত্রদলের জেলা যুগ্ম-আহ্বায়ক বিশ্বজিৎ বিশ্বাস প্রমূখ। সভা পরিচালনা করেন এ্যাডঃ আহাদ আলী লস্কর।
নেতৃবৃন্দ আরও বলেন বিশ্ব পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে বাজার ও প্রভাব বলয় বন্টন, পুর্নবন্টন প্রশ্নে সাম্রাজ্যবাদীরা বিশ্ব যুদ্ধের প্রস্তুতি নিয়ে অগ্রসর হচ্ছে। তারই আলোকে দক্ষিণ এশিয়া, দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যকে কেন্দ্র করে মার্কিন সাম্রাজ্যবাদের নেতৃত্বে ন্যাটো জোট এবং সাম্রাজ্যবাদী রাশিয়া ও পুঁজিবাদী চিনের নেতৃত্বে সাংহাই-৬ উভয়ে প্রস্তুতি ও পরিকল্পনা অগ্রসর করে চলেছে। উভয় শক্তি এই যুদ্ধে বাংলাদেশকে সম্পৃক্ত করতে চায়। বক্তারা বলেন, বিশ্বব্যাপী সাম্রাজ্যবাদী অন্যায় যুদ্ধের বিরুদ্ধে বিশ্ব বিপ্লবের অংশ হিসাবে ন্যায় যুদ্ধ গড়ে তুলতে দেশের শ্রমিক-কৃষক-জনগণকে এগিয়ে আসতে হবে। সভাপতি তার আলোচনায় বলেন, “নির্বাচন গণতন্ত্রের পূর্ব শর্ত নয় বরং একটি গণতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থায় সুষ্ঠ নির্বাচনের গ্যারান্টি”। আর তার জন্য প্রয়োজন সাম্রাজ্যবাদ, সামন্তবাদ আমলা দালালপুঁজি উচ্ছেদ করে শ্রমিক কৃষক জনগণের রাষ্ট্র, সরাকর, সংবিধান প্রতিষ্ঠা করা। এই সংগ্রামের প্রেরণা হচেছ এদেশের বিপ্লবী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের আপোষহীন নেতা কমরেড আবদুল হক।

শেয়ার