পাকিস্তানের ‘এজেন্ট’ খালেদা জিয়া

jagannat
বাংলানিউজ ॥
কাদের মোল্লার ফাঁসির পর পাকিস্তান পার্লামেন্টে নিন্দা প্রস্তাব আনায় জনগণ যখন এর প্রতিবাদ করেছে তখন খালেদা জিয়া কোনো প্রতিক্রিয়া না জানিয়ে নিজেকে পাকিস্তানের ‘এজেন্ট’ হিসেবে প্রমাণ করেছেন।

সোমবার দুপুরে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ আয়োজিত বিজয় দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।

খালেদা জিয়ার উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, যদি দেশকে ভালোবাসেন তাহলে পাকিস্তানের নিন্দা প্রস্তাবের ধিক্কার জানান। যুদ্ধাপরাধের বিচারে সহযোগিতা করুন।

কাদের মোল্লার ফাঁসি নিয়ে পাকিস্তানের ভূমিকার সমালোচনা করে হানিফ বলেন, বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের অধিকার পাকিস্তান কেন, কোনো দেশেরই নেই। পাকিস্তান কাদের মোল্লাকে তাদের একজন অকুতোভয় সৈনিক হিসেবে উল্লেখ করেছে। এটাই প্রমাণ করে জামায়াত এদেশে পাকিস্তানের প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে।

রাজনীতিবিদদের নিয়ে সম্প্রতি একটি জাতীয় দৈনিকে সংবাদ প্রকাশের সমালোচনা করে মাহবুবুল আলম হানিফ বলেন, রাজনীতিবিদদের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে কতিপয় সাংবাদিক তৃতীয় শক্তির উত্থান ঘটাতে চাচ্ছে। এর আগেও সাংবাদিকতার নামে হলুদ সাংবাদিকতা করে রাজনীতিবিদদের চরিত্র হননের অপচেষ্টা করা হয়েছে।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শরীফুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন- ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম, বিশ্ববিদ্যালয়ের নীল দলের সভাপতি অধ্যাপক ড. সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. রেজাউল করিম প্রমুখ।

শেয়ার