নির্বাচনের প্রার্থী নিবন্ধন কেন্দ্র ঘেরাও থাই বিক্ষোভারীদের

Thi

বাংলানিউজ ॥
আসন্ন ২ ফেব্রুয়ারির আগাম জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিতে প্রার্থীদের নিবন্ধনের জন্য রাজধানী ব্যাংককের নির্ধারিত প্রধান কেন্দ্র ঘিরে রেখেছে থাইল্যান্ডের সরকারবিরোধী বিক্ষোভকারীরা।
কেন্দ্র ঘেরাও করে রাখা বিক্ষোভকারীরা বলছেন, নির্বাচন সম্পন্ন হওয়ার আগে রাজনৈতিক সংস্কার চান তারা।
আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছে, রোববারের মতো সোমবারও রাজধানী ব্যাংককের রাস্তায় বিক্ষোভ প্রদর্শন করছে হাজারো বিক্ষোভকারী।
তবে, বিক্ষোভকারীদের গণতান্ত্রিক পন্থার প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শনের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ইংলাক সিনাওয়াত্রা।
সোমবার বিক্ষোভকারী দলের নেতা সুথেপ থাউগসুবান এক বিবৃতিতে বলেন, আমরা আগাম নির্বাচনের ব্যাপারে একমত নই। নির্বাচনের আগেই দেশের রাজনৈতিক সংস্কার চাই।
তিনি প্রার্থিতা নিবন্ধনের জন্য নির্ধারিত রাজধানীর থাই-জাপানিস স্টেডিয়াম ঘেরাওয়ের জন্য বিক্ষোভকারীদের প্রতি আহ্বান জানান।
সুথেপ বলেন, কেউ যদি প্রার্থিতার জন্য আবেদন করতে যায়, তবে আমাদের মাড়িয়ে যেতে হবে।
সম্প্রতি আগাম নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেয় সাবেক প্রধানমন্ত্রী অভিজিত বেজাজিবার নেতৃত্বাধীন প্রধান বিরোধী দল ডেমোক্রেটিক পার্টি (ডিপি)।
সংবাদ মাধ্যমগুলোর প্রতিনিধিরা জানিয়েছে, রাজনৈতিক দলগুলোর প্রার্থীরা স্থানীয় পুলিশ স্টেশনগুলোতে নিবন্ধন করা শুরু করেছেন, তবে পুলিশ স্টেশনগুলো ঘেরাও করে এর প্রতিবাদ জানাচ্ছেন বিক্ষোভকারীরা।
উল্লেখ্য, সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রাকে দুর্নীতির মামলা থেকে রেহাই দিতে তার বোন ইংলাক আইন প্রণয়ন করেছেন দাবি করে গত ২৪ নভেম্বর বিক্ষোভে নামে সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী সুথেপের নেতৃত্বাধীন সরকারবিরোধীরা।
নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা সত্ত্বেও বিক্ষোভের মুখে পার্লামেন্ট ভেঙে দিয়ে আগাম নির্বাচনের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী ইংলাক। কিন্তু বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে একাত্মতা পোষণ করেন প্রধান বিরোধী দল ডিপিও নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেওয়ায় দেশটিতে নতুন করে সঙ্কট দেখা দিলো।

শেয়ার