দ. সুদানে বিরাজ করছে ‘ভীতির পরিবেশ’

sudan

বাংলানিউজ ॥
ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থানের পর সহিংসতার কারণে আফ্রিকার দেশ দক্ষিণ সুদানে ‘ভীতির পরিবেশ’ বিরাজ করছে। দেশটির রাজধানী জুবায় জাতিসংঘ মিশনে প্রতিদিন বাড়ছে শরণার্থীদের সংখ্যা।

বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণে থাকা গুরুত্বপূর্ণ শহর বোরে বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড চলছে বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘের হিউম্যানিটারিয়ান কো-অর্ডিনেটর টবি ল্যানজার।

দক্ষিণ সুদানে জাতিসংঘের মিশন দেশটির রাজনীতিকদের সহিংসতা বন্ধে সমঝোতায় পৌঁছানোর আহ্বান জানিয়েছে।

গত সপ্তাহে প্রেসিডেন্ট সালভা কিরকে উৎখাতের চেষ্টা চালান সেনাবাহিনীর একাংশ। কিন্তু কিরকে সমর্থনকারী সেনাসদস্যদের প্রতিরোধে অভ্যুত্থান ব্যর্থ হয়। অভ্যুত্থানকারীরা সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট রিয়েক ম্যাচারপন্থি বলে অভিযোগ করেছেন কির।

অভ্যুত্থানের পর সহিংসতায় প্রায় এক হাজার জন নিহত হয়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। গত সপ্তাহের রোবববার অভ্যুত্থানের দুই দিনের মধ্যে ৫শতাধিক লোক নিহত হয় বলে জানিয়েছিল জাতিসংঘ।

সুদান থেকে আলাদা হয়ে যাওয়ার মাত্র দুই বছরের মধ্যেই ক্ষমতার পালাবদলের জন্য অভ্যুত্থানের ঘটা ঘটে।

দলে দলে লোকজন রাজধানী জুবায় জাতিসংঘের মিশনে আশ্রয় নিচ্ছে বলে জানান ল্যানজার। ল্যানজার বলেছেন, মানুষকে লাইনে দাঁড় করিয়ে বিচার বহির্ভূতভাবে হত্যা করা হচ্ছে।

প্রত্যন্ত রাজ্য জংলেইর বোরো শহর থেকে নিজস্ব নাগরিকদের সরিয়ে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

শেয়ার