সরকার চাইলে সব জেলায় সেনা মোতায়েন

CEC
বাংলানিউজ ॥
যে সব আসনে নির্বাচন হচ্ছে না, সেখানে নির্বাচনী কাজে সেনা না লাগলেও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার কাজে সেনা সহায়তা লাগতে পারে।
তাই, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সরকার ইচ্ছা করলে সারাদেশেই সেনাবাহিনী নামাতে পারে বলে মত দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিব উদ্দিন আহমেদ।
রোববার সন্ধ্যায় নির্বাচন কমিশন কার্যালয় ত্যাগের সময় তিনি উপস্থিত সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।
সিইসি বলেন, এবার পাঁচ জেলায় ভোট হচ্ছে না। সেখানে নির্বাচনের জন্য সেনা প্রয়োজন নেই। তবে সরকার চাইলে সারাদেশে সেনা মোতায়েন করতে পারে। সাধারণ নির্বাচন ছাড়াও অন্যান্য কাজেও সেনা লাগাতে পারে।
তিনি বলেন, সরকার হঠাৎ করে সেনা ডাকতে পারবে। তবে কোথায় কত সংখ্যক সেনা লাগবে, তা জেলা আইন-শৃঙ্খলা মনিটরিং সেল ঠিক করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠাবে। কোথাও বেশি লাগতে পারে, কোথাও-বা কম।
এখন হয়ত কোথাও আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি খারাপ, পরে হয়ত ওইখানে ভালো হবে। আবার এখন যেখানে ভালো অবস্থা, সেখানে অবস্থা খারাপও হতে পারে। তবে আমাদের নির্বাচনের জন্য সব জেলায় হয়ত সেনা লাগবে না।
সেনা মোতায়েন প্রসঙ্গে তিনি আরোও বলেন, এর আগে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বলা হয়েছে, আমরা কেন সেনা মোতায়েন করিনি। এবার আবার বলা হচ্ছে, আমরা কেন সেনা মোতায়েন করছি! দুইটাকে সবাই মিলিয়ে দিচ্ছেন।
সিইসি বলেন, জাতীয় নির্বাচন আর্মি ছাড়া হয় না। আমি আগেও বলেছি, ১৯৭৩ সাল থেকে সব জাতীয় নির্বাচনে সেনা মোতায়েন হয়েছে। এমন কী চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনেও সেনা চাওয়া হয়েছিল। এবারও আমরা প্রোপার্লি (যথা সময়ে) সেনা ডেকেছি।
তিনি বলেন, আগের প্রেক্ষাপট আর বর্তমানের প্রেক্ষাপট এক নয়। কারণ, সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন স্বল্প পরিসরে হয়ে থাকে। আর জাতীয় নির্বাচন একযোগে, সারাদেশে হয়।
আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দল কেন এসেছিল এ প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, তারা একটি উপকমিটি গঠন করেছেন। দেখা করতে ও পরিচিত হওয়ার জন্য তারা এসেছিলেন। তারা নির্বাচনে সার্বিকভাবে আমাদের সহায়তা ছাড়াও সব ধরনের আইন-কানুন মেনে চলার কথা বলেছেন; যেহেতু, আওয়ামী লীগ বড় একটি দল।

শেয়ার