যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে কঠোর ভারত, এমপিদের ক্ষোভ

Usa
সমাজের কথা ডেস্ক॥ দিল্লিতে যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের সামনে থেকে নিরাপত্তা চৌকি তুলে নেয়া হচ্ছে। নিউ ইয়র্কে ভারতীয় কূটনীতিক দেবযানী খোবরাগাড়েকে গ্রেপ্তার ও হেনস্তার অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছে নয়াদিল্লি।
ভারতে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের বাইরের নিরাপত্তা বেষ্টনী সরিয়ে দেয়ার পর নয়াদিল্লি মার্কিন কূটনীতিকদের সুযোগ সুবিধাও বাতিল করেছে। স্থগিত করেছে মার্কিন দূতাবাসের আমদানি ছাড়পত্র।
যুক্তরাষ্ট্রের কনস্যুলেটের কর্মকর্তা-কর্মচারিদের জন্য শুল্কমুক্ত মদ ও অন্যান্য খাবার আমদানি বন্ধ করেছে ভারত। একইসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের কনস্যুলেটে নিযুক্ত ভারতীয়দের কাজের পরিবেশ যাচাই করে শ্রম আইন লঙ্ঘন হচ্ছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হবে বলেও জানিয়েছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সালমান খুরশীদ।
ওদিকে, ভারতের এমপিরাও বুধবার সকালে পার্লামেন্টের অধিবেশনে দেবযানীকাণ্ডে ক্ষোভ প্রকাশ করে এর জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে সরকারকে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি তুলেছেন।
ভারতের বিরোধীদলীয় কয়েকজন এমপি সরকারের প্রতি এ দাবি জানান।
পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষে প্রধান বিরোধীদল ভারতীয় জনতা পার্টির(বিজেপি)নেতা অরুণ জেটলি বলেন, “ভারতের উচিত যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ককে আরো গুরুত্বের সঙ্গে নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের মতো একইধরনের আচরণ করা”।
তিনি দেবযানী গ্রেপ্তারের ঘটনাটি জেনেভা কনভেনশনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন বরে মন্তব্য করেন।
ভিসার আবেদনে মিথ্যা তথ্য দেয়ার অভিযোগে গত ১২ ডিসেম্বরে যুক্তরাষ্ট্র ভারতীয় কূটনীতিক (ভারতীয় কনস্যুলেটের ডেপুটি কনসাল জেনারেল) দেবযানী খোবরাগাড়েকে গ্রেপ্তারের পর তাকে হেনস্তার ঘটনা প্রকাশ পেলে ক্ষুব্ধ হয় ভারত সরকার।
এ ঘটনার বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর অবিলম্বে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া উচিত, বলেছেন, ভারতের বহুজন সমাজবাদী পার্টির নেতা মায়াবতী। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকরা ভারতে পদার্পন করলে তাদেরকে অনেক সম্মান দেখানো হয়। এ বিষয়টি এখন ভেবে দেখা দরকার।
পার্লামেন্টে পররাষ্ট্রমন্ত্রী খুরশীদও বলেছেন, “বিষয়টি এখন আর ব্যক্তি পর্যায়ে সীমাবদ্ধ নেই। এটি এখন একটি জাতি হিসাবে আমাদের আত্মমর্যাদাবোধ এবং বিশ্বে আমাদের অবস্থানের ব্যাপার”।
দেবযানীকে যেভাবে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তা নিয়ে বহু ভারতীয়ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।
মেয়েকে স্কুলে নামিয়ে দেয়ার সময় রাস্তা থেকেই দেবযানীকে গ্রেপ্তার করে প্রকাশ্যে তাকে হাতকড়া পরিয়ে দেয়া হয়। পরে আড়াই লাখ ডলার জামিনে মুক্তি দেয়া হয় তাকে।

শেয়ার