বিশ্লেষণে আইফোন ৫সি ও ৫এস

Iphone5
সুযোগ সুবিধার বিষয়টি ভেবে অ্যাপলের আইফোন ৫এস এবং ৫সি, দুটি মডেলের মধ্য থেকে যদি কোনো একটিকে বেছে নিতে হয়, তা হলে কোনটা নেওয়া উচিত? টেকবোদ্ধাদের মতে ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করলে আইফোন ৫এস ফোনটিকেই বেছে নেওয়াই যুক্তিসংগত।

এক প্রতিবেদনে মার্কিন সাময়িকী ফোর্বস জানিয়েছে, আইফোন ৫সি এবং আইফোন ৫এস দুটি স্মার্টফোনই বেশ উন্নতমানের। কিন্তু একই দিনে বাজারে এলেও ভবিষ্যতে প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে যাবে আইফোন ৫সি।

আইফোন ৫সি তৈরিতে ব্যবহৃত হয়েছে আইফোন ৫-এর এ৬ সিপিইউ চিপ। কিন্তু সে জন্য একে বলা ঠিক নতুন বোতলে পুরনো পানীয় বলে লেবেলে দেওয়া যাবে না। কারণ, ফোনটির কারিগরি ও প্রযুক্তিগত ডিজাইনে কোনো ত্রুটি রাখেনি অ্যাপল। অন্যদিকে আইফোন ৫এস মডেলে ব্যবহার করা হয়েছে দ্রুতগতির এ৭ চিপ, গ্রাফিক্সের জন্য উন্নতমানের পাওয়ারভিআর জিপিইউ।

এছাড়াও অ্যাপল এখন আইওএস-এর জন্য ৬৪বিট প্রসেসর ব্যবহার করছে। বর্তমানে প্রায় সব অ্যাপই ৩২বিটের উপর ভিত্তি করে বানানো। তবে ডেভলপাররা ৬৪ বিটের জন্য অ্যাপ তৈরি শুরু করেছে। খুব শীঘ্রই উন্নতমানের সব অ্যাপ হবে ৬৪ বিট কেন্দ্রিক যা ৩২ বিটের ফোনে চলবে না।

কিন্তু আইফোন ৫সি-তে শুধুই ৩২ বিটের অ্যাপ চালানো সম্ভব। ফলে ভবিষ্যতে যখন ৬৪ বিটের অ্যাপগুলো আসবে তখন আইফোন ৫সি ব্যবহারকারীরা সেগুলো ব্যবহার করতে পারবেন না।

শেয়ার