হরতাল-অবরোধ॥ রাস্তার গাছ কেটে সাবাড় করছে বিএনপি জামায়াত

tree
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ হরতাল-অবরোধের নামে যশোরে জামায়াত-বিএনপি রাস্তার পাশের সড়কের গাছ নিধন অভিযানে নেমেছে। একের পর এক রাস্তার পাশের গাছ কেটে ফেলা হচ্ছে। কিন্তু প্রশাসনের পক্ষ থেকে ঠেকাতে পারছে না জামায়াত বিএনপির নাশকতা। শহরের বাইরের ব্যস্ত সড়ক টার্গেট করে প্রতিদিন রাতের আধারে কেটে ফেলা হচ্ছে এসব গাছ। এতে একদিকে যেমন পরিবেশের ক্ষতি অপরদিকে সরকারি সম্পদ নষ্ট হচ্ছে। এ ঘটনায় মামলা হয়নি। প্রশাসনের কড়া নজরদারি না থাকায় এমন ঘটনা ঘটছে বলে অভিযোগ।
বিগত কয়েক বছর ধরে বিএনপি-জামায়াতের আন্দোলনের মূল টার্গেট শহর কেন্দ্রিক ছিল। কিন্তু সম্প্রতি বিএনপি জামায়াত ক্যাডাররা শহরের বাইরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক টার্গেট করেছে। রাতের আঁধারে রাস্তার পাশের বড় বড় গাছ কেটে অবরোধ সৃষ্টি করা হচ্ছে। রাস্তার দুপাশের সারি সারি গাছ কেটে ফেললেও প্রশাসনের কড়া নজরদারি না থাকায় ঠেকানো যাচ্ছে না। যশোরের তিনটি সড়ক জামায়াত-বিএনপি ক্যাডারদের টার্গেটে পরিণত হয়েছে। এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত যশোর-মণিরামপুর সড়ক। হরতাল অবরোধ হলেই এই সড়কের অসংখ্য গাছের প্রাণ যাচ্ছে। বড় বড় গাছ রাস্তায় আড় করে অবরোধ সৃষ্টি করা হয়। এছাড়াও যশোর-খুলনা সড়কের রূপদিয়া ও বসুন্দিয়া এলাকায় ৫ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে নির্বিচারে গাছ কাটা হয়েছে। কয়েক শত বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কেটে তাণ্ডব চালায় বিএনপি জামায়াত ক্যাডাররা। অপরদিকে যশোর-বেনাপোল সড়কের নতুনহাট এলাকায় গাছ কেটে অবরোধ করা হয়। বিএনপি জামায়াত ক্যাডাররা আন্দোলনের হাতিয়ার হিসেবে গাছ ব্যবহার করছে। কয়েক দিনে কয়েক শ গাছ কাটা হলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। এতে অপরাধীরা অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছে। প্রশাসনের নিষ্ক্রিয়তায় হতাশ সচেতন মহল। তাদের দাবি পুলিশ ও জেলা পরিষদ জোরালো ভূমিকা না রাখায় বৃক্ষ নিধন বাড়ছে।

শেয়ার