সাতক্ষীরায় দু’সংবাদ কর্মীকে পিটিয়েছে শিবির॥ সড়কে টিনের ঘর বানিয়ে অবরোধ আ’লীগ অফিসে আগুন

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি॥ সাতক্ষীরায় ১৮ দলের অবরোধ কর্মসূচীর ৫ম দিনে কালিগঞ্জ সড়কের নলতা এলাকার রওজা শরীফ মোড় ও কলেজ মোড়ে টিনের ঘর বানিয়ে মহাসড়ক অবরোধ করে জামায়াত-শিবির। এ ঘটনায় স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভ বিক্ষোভ দেখা দেয়। এরবাইরে জেলার বিভিন্ন স্থানে টায়ার জ্বালিয়ে, সড়কে গুড়ি ফেলে ও মাটির ঢিবি বানিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকালে শহরের অদূরে কদমতলা এলাকায় সাতক্ষীরা-যশোর সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে, গাছের গুড়ি ফেলে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে বিক্ষোভ সমাবেশ ও দোয়া অনুষ্ঠান পালন করে ১৮ দলের নেতা কর্মীরা। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় জামায়াত নেতা মুহাদ্দিস আব্দুল খালেক, জেলা জামায়াতের আমীর অধ্যক্ষ আব্দুল খালেক মন্ডল প্রমুখ। এদিন সাতক্ষীরা-কালিগঞ্জ সড়কের বাাঁকাল এলাকায় সড়কের উপর বসে অবস্থান ধর্মঘট ও সমাবেশ করে ১৮ দল। সাতক্ষীরা-কালিগঞ্জ সড়কের পারুলিয়া জলিল হ্যাচারীর সামনে সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে স্থানীয় দুটি পত্রিকার সংবাদপত্র কর্মী ফাহাদ হোসেন রনি ও আজহারুল ইসলামকে মারপিট করে জামায়াত শিবিরের ক্যাডাররা। বিজিবি তাদের উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। মঙ্গলবার মধ্যরাতে সাতক্ষীরা পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের অফিস ও বঙ্গবন্ধু স্মৃতি পাঠাগার ভাংচুর করে ও আগুন দেয়া হয়। একই সময়ে দেবহাটার টাউন শ্রীপুরে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের অফিস ও মুক্তিযোদ্ধা অফিস ভাংচুর এবং অগ্নিসংযোগ করে হরতাল সমর্থক জামায়াত-শিবির কর্মীরা। সাতক্ষীরা সদর থানার ওসি ইনামুল হক ও দেবহাটা থানার ওসি তারক কুমার বিশ্বাস জানান, যেকোন পরিস্থিতি মোকাবেলায আইন রক্ষাকারী বাহিনী প্রস্তুত রয়েছে। পুলিশী বিজিবি ও র‌্যাবের টহল বাড়ানো হয়েছে।

শেয়ার