দেশব্যাপী জামাতের তাণ্ডবে পুলিশে সতর্কাবস্থা

saradesh
বাংলানিউজ ॥
মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্নস্থানে জামায়াত-শিবিরের ব্যাপক সহিংসতা ও ধ্বংসাত্মক কর্মকান্ড মোকাবেলায় দেশব্যাপী পুলিশ সদস্যদের সর্বোচ্চ সর্তকাবস্থায় দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
মানবতা বিরোধী অপরাধে জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল কাদের মোল্লার ফাঁসির রায় ঘোষণার পর থেকে জামায়াত আরও ব্যাপকভাবে নাশকতা শুরু করে।
এরআগে গোপন তথ্য পেয়ে সোমবার রাতে পুলিশ সদর দপ্তরে পুলিশের শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তারা বৈঠকে বসেন।ওই বৈঠকের পর রাতেই এ সংক্রান্ত একটি আদেশ পুলিশের বিভিন্ন রেঞ্জ, মেট্রোপলিটন ইউনিট ও জেলা পর্যায়ের পুলিশ সুপারদের কাছে পাঠানো হয়।
পুলিশ সদর দপ্তরের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, আদেশে বলা হয়, দেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও জামায়াত-শিবিরের নাশকতা বেড়ে যাওয়ায় সকল ইউনিটের পুলিশ সদস্যকে সতর্কতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন ও চলাচল করতে নির্দেশ দেয়া হল। এছাড়া গত কিছুদিন ধরে পুলিশের সদস্যদের লক্ষ্য করে ককটেল নিক্ষেপসহ তাদের ওপর হামলার ঘটনা তো রয়েছেই।
এদিকে দেশের যে সব জেলায় জামায়াত-শিবিরের সহিংসতার ঘটনা বেশি- সে সব জেলায় রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্স (আরআরএফ)সংখ্যা বাড়ানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
বৈঠকে উপস্থিত পুলিশের একজন শীর্ষ কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বাংলানিউজকে জানান, মানবতা বিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত জামায়াতের শীর্ষ নেতার রায় কার্যকর প্রক্রিয়ার খবরে দেশব্যাপী সংগঠনটির নেতা কর্মীরা ধ্বংসাত্মক কর্মকান্ড ছাড়াও পুলিশের উপর হামলা আশঙ্কাজনকভাবে বেড়ে গেছে।
তিনি আরো জানান, নাশকতা রোধে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানো, নাশকতাকারীদের চিহ্নিত করে অভিযান পরিচালনাসহ সভায় দেশব্যাপী পুলিশকে সর্বোচ্চ সর্তকাবস্থায় থেকে দায়িত্ব পালনের উপর গুরুত্ব দেয়া হয়।
বৈঠকের পর মঙ্গলবার রাতেই পুলিশ সদর দপ্তরের গোপন শাখা থেকে পুলিশের সকল উইনিট, রেঞ্জ ও জেলার পুলিশ সুপারদের ফ্যাক্স ও ই-মেইলে এ সংক্রান্ত আদেশ পাঠানো হয়।

শেয়ার