১৭ জেলায় ২ মাসের মধ্যে প্রাইমারি নিয়োগ পরীক্ষা

বাংলানিউজ ॥
প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ ১৭ জেলায় বাতিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক (প্রাক প্রাথমিক) নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা আগামী দুই মাসের মধ্যে নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।
মঙ্গলবার সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘তদন্তে এসব জেলায় আংশিক প্রশ্নপত্র প্রকাশিত হয়েছে বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে। তদন্তে যে তথ্য পাওয়া গেছে তার উপর ভিত্তি করে ব্যবস্থা নেব, ব্যবস্থা নেওয়া শুরু হয়েছে।’ তবে কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে তা জানাননি শিক্ষামন্ত্রী।
গত ৮ নভেম্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণিতে শিক্ষক নিয়োগে এক হাজার ৩৬২টি কেন্দ্রে লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এতে নয় লাখ ৬৮ হাজার ১২৭ জন অংশ নেন।
কিন্তু পরীক্ষার আগেই বিভিন্ন জেলায় প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়ে যায়। এ বিষয়ে গত ১২ নভেম্বর প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এস এম আশরাফুল ইসলামকে আহ্বায়ক করে চার সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়।
লিখিত পরীক্ষার সাত সেট প্রশ্নের মধ্যে ‘হোয়াংহো’ ও ‘মিসিসিপি’ সেট ফাঁস হয়েছে বলে প্রমাণ পায় তদন্ত কমিটি।এর প্রেক্ষিতে এসব জেলার পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে।
ঢাকা, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা, শেরপুর, কক্সবাজার, লালমনিরহাট ও নারয়ণগঞ্জে ‘হোয়াংহো’ সেটে পরীক্ষা হয়েছিলো।

শেয়ার