যশোরে পিকেটিংয়ে জনতার প্রতিরোধ॥ আ’লীগ অফিসের সামনে ককটেল বিস্ফোরণ

aowamilig
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরে দু’একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া ঢিলেঢালা হরতাল পালিত হেেয়ছে। সাধারণ মানুষ হরতালে সাড়া দেয়নি। হরতাল সমর্থকদের পিকেটিংয়ের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলে সাধারণ মানুষ। এছাড়াও অভ্যন্তরীণ রুটে পরিবহন চলাচল স্বাভাবিক ও সরকারি অফিস আদালত খোলা ছিল। সোমবার দুপুরে শহরের প্রাণকেন্দ্র দড়াটানায় জনতার ধাওয়ায় রাজপথ ছেড়ে পালিয়ে যায় জামায়াত শিবির কর্মীরা। এর আগে ভোরে হরতাল সমর্থকরা জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে দু’টি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে। পুলিশ জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে ১০ জন জামায়াত ও ৪ বিএনপি কর্মীকে আটক করেছে।
শহরের দড়াটানায় জামায়াত শিবির কর্মীরা পিকেটিংকালে কয়েকজন রিকসা আরোহীকে লাঞ্ছিত করে। এর জের ধরে স্থানীয় লোকজন ঐক্যবদ্ধ হয়ে পিকেটারদের ধাওয়া করলে তারা পালিয়ে যায়। এর আগে ভোরে শহরের গাড়িখানা রোডে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে সামনে দু’টি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায় হরতাল সমর্থকরা। তবে এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।
যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমদাদুল হক জানান, আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে দুর্বৃত্তরা দু’টি ককটেল ফাটিয়েছে। আর দড়াটানায় হরতাল সমর্থকরা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির বিঘœ ঘটানোয় পুলিশ জনতা ধাওয়া দিয়ে তাদেরকে সরিয়ে দিয়েছে।

শেয়ার