ম্যান্ডেলার শেষকৃত্যে যোগ দিতে রাষ্ট্রপতির ঢাকা ত্যাগ

বাংলানিউজ ॥
বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনের মহান নেতা নেলসন ম্যান্ডেলার শেষকৃত্যে যোগ দিতে দক্ষিণ আফ্রিকার উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ ত্যাগ করেছেন রাষ্ট্রপতি অ্যাডভোকেট আবদুল হামিদ।
সোমবার বিকেল ৪টা ১৫ মিনিটে বাংলাদেশ বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইটে শাহজালাল বিমানবন্দর ত্যাগ করেন তিনি।
রাষ্ট্রপতিকে বিদায় জানাতে এসময় বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন নির্বচনকালীন সরকারের ভূমি, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা এবং ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রী আমির হোসেন আমু, শিল্প, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী তোফায়েল আহমদ, মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, তিন বাহিনীর প্রধানসহ পদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তারা।
মঙ্গলবার দক্ষিণ আফ্রিকার রাজধানী জোহানেসবার্গের সোবেতোর এফএনবি (সকার সিটি) স্টেডিয়ামে ম্যান্ডেলার জাতীয় স্মরণানুষ্ঠান সম্পন্ন হবে। তিন দিন প্রেসিডেন্ট ভবনে রাখার পর ১৫ ডিসেম্বর রোববার পারিবারিক সমাধিস্থলে সমাহিত হবেন তিনি। এর আগে সম্পন্ন হবে রাষ্ট্রীয় শেষকৃত্য এবং পারিবারিক ও ধর্মীয় শেষকৃত্য।
ম্যান্ডেলার স্মরণানুষ্ঠান ও শেষকৃত্যে যোগ দিচ্ছেন বিশ্বের সবচেয়ে ব্যস্ততম ব্যক্তিত্বরা। বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ছাড়াও মঙ্গলবারের স্মরণানুষ্ঠানে যোগ দিচ্ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ, বিল ক্লিনটন, জিমি কার্টার, ফরাসি প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওঁলাদে, যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন, জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন, জার্মান প্রেসিডেন্ট জোচিম গ্যঁক, ইউরোপীয় ইউনিয়ন কমিশনের প্রেসিডেন্ট জোসে ম্যানুয়েল বারোসো, ডাচ রাজা উইলেম আলেক্সান্ডার, স্পেনের যুবরাজ ক্রাউন প্রিন্স ফিলিপ, ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট দিলমা রৌসেফ, ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস, ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি প্রমুখ। স্মরণানুষ্ঠানে আরও যোগ দিতে পারেন ইরানি প্রেসিডেন্ট হাসান রৌহানি।
বিবিসি অনলাইন জানিয়েছে, ইতোমধ্যে ৫৯টি রাষ্ট্রের সরকার বা রাষ্ট্রপ্রধান ম্যান্ডেলার স্মরণানুষ্ঠান বা শেষকৃত্যে উপস্থিত হওয়ার ব্যাপারে নিশ্চিত করেছেন।

শেয়ার