বালি সম্মেলনে লাভবান হয়েছে বাংলাদেশ

বাংলানিউজ ॥
সদ্য শেষ হওয়া বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার (ডাব্লিউটিও) বালি সম্মেলনে বাংলাদেশ লাভবান হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্য সচিব মাহবুব আহমেদ।
সোমবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বাণিজ্য সচিব এ কথা জানান।
গত ৩ থেকে ৬ ডিসেম্বর ইন্দোনেশিয়ার বালিতে অনুষ্ঠিত মন্ত্রী পর্যায়ের এ সম্মেলনে বাণিজ্য সচিবের নেতৃত্বে ১৪ সদস্যের প্রতিনিধি দল অংশ নেয়।
সচিব বলেন, স্বল্পোন্নত দেশ হিসেবে বাংলাদেশ উন্নত দেশগুলোর বাজারে শুল্কমুক্ত ও কোটামুক্ত সুবিধা পাবে। একই সঙ্গে বালি সম্মেলনে গৃহীত অন্য প্রস্তাবগুলো বাস্তবায়িত হলে বাংলাদেশের রপ্তানি বাড়বে।
বালি প্যাকেজে ডেভেলপমেন্ট ইস্যু, বাণিজ্য সহজিকরণ চুক্তি ও কৃষির তিনটি প্যাকেজ ছিল বলে জানান বাণিজ্য সচিব।
ডেভেলপমেন্ট ইস্যুর আওতায় চারটি স্বল্পোন্নত দেশের ইস্যু ও মনিটরিং মেকানিজম রয়েছে। স্বল্পোন্নত দেশের চারটি ইস্যু হচ্ছে- শুল্কমুক্ত ও কোটামুক্ত বাজার সুবিধা, রুলস অব অরিজিন, সার্ভিসেস ওয়েভার বাস্তবায়ন ও কটন ইস্যু।
সংবাদ সম্মেলনে স্বল্পোন্নত দেশের চারটি ইস্যুর আওতায় প্রাপ্য সুবিধাদি ব্যাখ্যা করে সচিব বলেন, শুল্কমুক্ত ও কোটামুক্ত বাজার সুবিধা প্রসঙ্গে বলা হয়েছে, হংকং সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যেসব উন্নত দেশ এখনো কমপক্ষে ৯৭ শতাংশ পণ্যে শুল্কমুক্ত ও কোটামুক্ত সুবিধা দেয়নি, তারা ডাব্লিউটিওর আগামী সম্মেলনের আগে প্রদেয় এসব সুবিধা বাড়াবে।

শেয়ার