প্রধান চরিত্রেই কেবল প্রসূন

prosun
চলচ্চিত্রে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন টিভিঅভিনেত্রী প্রসূন আজাদ। শফিকুল ইসলাম খান মিঠুর ‘নিঃশব্দ আর্তনাদ’ সিনেমার মাধ্যমে সিনেপর্দায় অভিষেকের পর চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন বাপ্পারাজের ‘বেঈমান’, বিদ্যুতের ‘রাজা গোলাম’ এবং কাজী হায়াৎ এর ‘সর্বনাশা ইয়াবা’ সিনেমাতে।

তিনি নিয়মিত কাজ করছেন নাটক ও টেলিফিল্মে। গ্লিটজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে প্রসুন জানান, ভবিষ্যতে অপপ্রচারকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবেন।

গ্লিটজ: মিঠুর ‘নিঃশব্দ আর্তনাদ’ সিনেমার আগে বেশ কয়েকটি সিনেমার অফার ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। এবার কেন রাজী হলেন?

প্রসূন: টিভি নাটকে আমার অভিনয় দেখে আগ্রহী হন পরিচালক মিঠু। এর আগে বেশ কয়েকটি সিনেমায় অভিনয়ের কথা থাকলেও নানা জটিলতায় সেগুলোতে অভিনয় করিনি। যেমন, শুটিং স্পটে গিয়ে দেখি, চিত্রনাট্যে ব্যপক পরিবর্তন আনা হয়েছে, বদলে গেছে নির্মাণ পরিকল্পনা। তখন সিনেমাগুলো ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছি। এরপর মিঠুর ‘নিঃশব্দ আর্তনাদ’ সিনেমার অফার পেলাম। এ সিনেমার গল্প পড়ে মনে হল, এখানে অভিনয় দেখানোর সুযোগ রয়েছে। গল্পটি ভীষণ ভালো লেগে গেল।

গ্লিটজ: এ সিনেমাতে আপনি কোন চরিত্রে অভিনয় করছেন?

প্রসূন: এ সিনেমাতে আমি রূপা চরিত্রে অভিনয় করছি। ভার্সিটি পড়ুয়া তিন তরুণ-তরুণীর জীবন নিয়ে এগিয়েছে এ সিনেমার গল্প। এতে আমার বিপরীতে অভিনয় করেছেন ইমন ও এবিএম সুমন।

গ্লিটজ: এরপর আপনি বাপ্পারাজের ‘বেঈমান’ সিনেমাতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। ওই সিনেমায় কোন চরিত্রে অভিনয় করছেন?

প্রসূন: রাজ্জাক-কবরী অভিনীত ‘বেঈমান’ সিনেমাটি পুননির্মাণ করছেন বাপ্পারাজ। এ সিনেমাতে আমি কবরী অভিনীত চরিত্রটি রূপায়ন করছি।

গ্লিটজ: কাজী হায়াৎ এর ‘সর্বনাশা ইয়াবা’ এবং বিদ্যুতের ‘রাজা গোলাম’ সিনেমাতে তো ভিন্নচরিত্রে হাজির হচ্ছেন?

প্রসূন: ‘‘সর্বনাশা ইয়াবা’ সিনেমাতে একজন পুলিশ অফিসার ও ‘রাজা গোলাম’ সিনেমাতে ক্রাইম রিপোর্টারের চরিত্রে অভিনয় করব। আসলে, একই ধাঁচের চরিত্রে অভিনয় করতে চাই না। নিজের অভিনয় দক্ষতা দেখাতে চাই।

গ্লিটজ: ক্যারিয়ার নিয়ে আপনার পরিকল্পনা কী?

প্রসূন: আমি সব সময় প্রধান চরিত্রে অভিনয় করতে চাই। গল্প ও চরিত্রে বৈচিত্র্য চাই। তবে সহ-অভিনেত্রীর কোনো চরিত্রে অভিনয় করব না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমার স্বপ্ন, আমার অভিনীত চরিত্রগুলোর মাধ্যমেই দর্শক আমাকে মনে রাখুক।

গ্লিটজ: সিনেমার ব্যস্ততায় নাটকে অভিনয়ের ফুরসত মিলবে তো?

প্রসূন: নাটক আমার প্রথম ভালোবাসা। নাটকের অভিজ্ঞতাই বড়পর্দাতে কাজে লাগছে। যতই ব্যস্ততা থাকুক নাটকে নিয়মিত অভিনয় করব।

গ্লিটজ: সেক্ষেত্রে ধারাবাহিক না একঘণ্টার নাটকে অভিনয় করবেন?

প্রসূন: আমি একঘণ্টার নাটক ও টেলিফিল্মেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। সিনেমার মতো এখানেও আমি প্রধান চরিত্রে অভিনয় করতে চাই। নির্মাতা গৌতম কৌরির কটি নাটকে অভিনয়ের কথা চলছে।

গ্লিটজ: কোন চরিত্রে কাজ করা সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং মনে হয়েছে?

প্রসূন: তৌকির আহমেদের পরিচালনায় ‘সোনালী রৌদ্রের রঙ দেখিয়াছি’ টেলিফিল্মে যৌনকর্মীর চরিত্রে অভিনয় করেছিলাম। শুটিং হয়েছিল দৌলতদিয়া ঘাটে। শুটিংয়ের ফাঁকে যৌনকর্মীদের সঙ্গে কথা বলেছি, তাদের জীবনধারা দেখেছি। আমার মতে, তাদের বেঁচে থাকার সংগ্রামের কাছে আমাদের লড়াই নস্যি। তাদের চরিত্রে অভিনয় করাটা খুব চ্যালেঞ্জিং ছিল। এদের সংগ্রামের গল্প পর্দায় ঠিকমত ফুটিয়ে তুলতে পারছি কি না তা নিয়ে ভয় ছিল। অমন চ্যালেঞ্জিং চরিত্র পেতে মুখিয়ে আছি আমি।

গ্লিটজ: সম্প্রতি মঞ্চনাটকের ব্যাপারে উৎসাহী হয়ে উঠেছেন আপনি। মঞ্চে নিয়মিত হবেন?

প্রসূন: মঞ্চে অভিনয়ের জন্যও মুখিয়ে আছি। আমার মতে, মঞ্চই অভিনয় শেখার আসল জায়গা। এখানে অভিনয়ের খুঁটিনাটি শেখা যায়। বিভিন্ন দলের সঙ্গে যোগাযোগ করছি। সুযোগ পেলে নিয়মিত কাজ করব।

গ্লিটজ: সম্প্রতি স্ক্যান্ডাল ইস্যুতে খবরের শিরোনাম হয়েছেন। ভবিষ্যতে স্ক্যান্ডাল রটলে সামলাবেন কি করে?

প্রসূন: মন্দ লোকে তো কত কিছুই রটাবে। এদের নিয়ে আমার কোনো মাথাব্যথা নেই। তবে ভবিষ্যতে মাত্রাতিরিক্ত কোনো কিছু সহ্য করব না। আমার পরিবারকে জড়িয়ে ফের মিথ্যা প্রচারণা চালালে আইনানুগ ব্যবস্থা নেব। এদের শাস্তি হওয়া দরকার।

গ্লিটজ: রূপালি পর্দায় অনেক তারকার সঙ্গে অভিনয় করেছেন। আপনার বাস্তবের নায়কটিকে কেমন হতে হবে?

প্রসূন: আমার স্বপ্নের নায়ককে হতে হবে উত্তম কুমারের মতন! সে দেখতে খুব সুন্দর হবে, মন হবে উদার। মানুষকে ভালোবাসতে জানতে হবে। আর আমার পেশাকে সম্মান জানাতে হবে।

গ্লিটজ: আপনার মিডিয়াযাত্রা শুরু গানের মাধ্যমে। গানের চর্চা কি বন্ধই করে দিলেন?

প্রসুন: ২০০২ সালে নতুন কুঁড়ি প্রতিযোগিতায় ঢাকা বিভাগে নজরুল সংগীতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলাম। এরপর পড়াশোনা ও মিডিয়ার ব্যস্ততায় গানের চর্চা বন্ধ হয়ে গেল। তবে আমি প্রচুর গান শুনি। গান আমাকে দারুণ সঙ্গ দেয়।

গ্লিটজ: পড়াশোনার কী অবস্থা?

প্রসূন: আমার স্বপ্ন, রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলায় পড়ব। সেজন্য প্রস্তুতি চলছে।

শেয়ার