যৌথ প্রযোজনায় ‘সীমারেখা’

simarakha
সমাজের কথা ডেস্ক॥
সেন্সর ছাড়পত্র পাওয়ার পর এখন মুক্তির দিন গুণছে বাংলাদেশ-ভারতের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত সিনেমা ‘সীমারেখা’। সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন বাংলাদেশের দেওয়ান নাজমুল ও কলকাতার স্বপন সাহা।

দেওয়ান নাজমুল এই সিনেমার মাধ্যমে পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করলেন।

বাংলাদেশের স্বপ্নতরু ও ভারতের আরতিচিত্র প্রডাকশন হাউজের ব্যানারে নির্মিত এই সিনেমার মাধ্যমে বড়পর্দায় অভিষেক হতে যাচ্ছে ফাহিম ও রথীর।

দেওয়ান বলেন, “রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার সময় টালিউডে যাতায়াত ছিল। পড়াশোনা শেষে একটি সিনেমা নির্মাণের পরিকল্পনা করি। তখন স্বপন সাহার সঙ্গে যোগাযোগ হয়। দুজন মিলে ঠিক করি, সিনেমাটি বাংলাদেশ-ভারত যৌথ উদ্যোগে নির্মিত হবে। ”

তিনি আরও বলেন, “আনকাট সেন্সর ছাড়পত্র এবং সেন্সর বোর্ডের সদস্যদের প্রশংসা আমার কাজের গতিকে আরও কয়েক ধাপ এগিয়ে নিয়ে গেছে।”

দুই দেশের দুই ধর্মের ছেলেমেয়ের ভালোবাসার সম্পর্ক এবং সামাজিক অবস্থান নিয়ে এগিয়েছে সিনেমার কাহিনি। কলকাতার মেয়ে শ্রেয়া ভালোবাসে বাংলাদেশের ছেলে বাবাইকে। কিন্তু ধর্মের সীমারেখা তাদের সম্পর্কে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। শ্রেয়া ও বাবাই এসব কিছুকে তোয়াক্কা না করে ভালোবাসার অধিকার আদায়ে শুরু করে এক অন্য লড়াই।

সিনেমাতে শ্রেয়া চরিত্রে রূপদান করছেন রথী, বাবাই চরিত্রে ফাহিম। এতে বাংলাদেশের শিল্পীদের মধ্যে অভিনয় করেছেন ববিতা, প্রয়াত অমল বোস।

ভারতের শিল্পীদের মধ্যে অভিনয় করেছেন রজতাভ দত্ত, দুলাল লাহিড়ী, মৃণাল মুখার্জি, গৌর শংকর পান্ডে, রঞ্জন ভট্টাচার্য, প্রিয়াংকা ভট্টাচার্য।

রথী বলেন, “সিনেমাটি মুক্তির জন্য অপেক্ষা করছি। এ সিনেমার সাফল্যেই নির্ভর করছে বড়পর্দায় আমার ভবিষ্যৎ।”

আলাউদ্দিন হকের সংগীত পরিচালনায় গানে কণ্ঠ দিয়েছেন এন্ড্রু কিশোর, কনকচাঁপা, বেবী নাজনীন, আগুন, এস আই টুটুল, তানজিনা রুমা ও সামিনা চৌধুরী।

শেয়ার