যশোর মেডিকেল কলেজ শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা ॥ দালালচক্র রক্ষার তৎপরতার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোর মেডিকেল কলেজের ৪ ছাত্রকে মারপিটের ঘটনায় জড়িতদের রক্ষার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। রাজনীতিকদের মদদে ছাত্ররা আন্দোলন করছে প্রচার দিয়ে একটি মহল ফায়দা নেয়ার অপতৎপরতা করছে। কৌশলে দালালদের রক্ষার চেষ্টাও করছে মহলটি। এতে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ক্ষোভ বাড়ছে ।
গত সোমবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে যশোর মেডিকেল কলেজের ৪ ছাত্রকে মারপিট করে হাসপাতালের চিহ্নিত দালালরা। একটি মেয়েকে উক্ত্যতের প্রতিবাদ করায় ক্ষিপ্ত হয়ে দালালরা ছাত্রদের উপর হামলা চালায়। এঘটনার পর উতপ্ত হয়ে ওঠে হ্সপাতাল চত্বর। ঘটনার সাথে জড়িত দালালদের আটক ও শাস্তির দাবিতে হাসপাতালের প্রধান ফটক বন্ধ করে দেয়। বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। এতে সীমাহীন ভোগান্তিতে পড়ে রোগীরা। এক পর্যায়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান কোতয়ালি থানার ওসি ইমদাদুল হক শেখ। তিনি দালালদের আটকের আশ্বাস দিলে ছাত্ররা শান্ত হয়। কিন্তু ওসি কথা না রায় পরদিন থেকে আবার বিক্ষোভ শুরু করে। বিক্ষোভেরমুখে ৪ দালালকে আটক করা হলেও পুলিশ পরে তাদের থানা থেকে ছেড়ে দেয়। এরপর দালাল রক্ষায় মাঠে নামে একটি স্বার্থান্বেষি মহল। তারা রাজনৈতিক মদদে আন্দোলন করছে বলে অপপ্রচার শুরু করে। এরপর বিষয়টি ভিন্নখাতে মোড় নেয়। কিছু শিক্ষার্থী আন্দোলন হতে পিছু হটে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের ভয়ভীতি দেখিয়ে আন্দোলন বন্ধে বাধ্য করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এদিকে আটকের পর দালালদের ছেড়ে দেয়ায় ফের হামলার আশঙ্কা করছে শিক্ষার্থীরা। বর্তমানে দালালরা আরও বেপারোয়া হয়ে ওঠেছে । এতে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ক্ষোভ বাড়ছে। দালালমুক্ত মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল গড়ার আন্দোলন শুরুর কথা ভাবছেন মেডিকেলের শিক্ষার্থীরা।

শেয়ার