যশোরে ৩ টি সংসদীয় আসনের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই ॥ ২ জনের মনোয়ন বাতিল॥ প্রত্যাহার আবেদন ৪ জনের

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরে ৪ প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহারের আবেদন করেছে। বৃহস্পতিবর জাতীয় পার্টির ৩ প্রার্থী ও স্বতন্ত্র ১ প্রার্থী তাদের মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের জন্য জেলা রিটার্নিং অফিসারের কাছে আবেদন পত্র জমা দিয়েছেন। একই সাথে ২ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়েছে।
জেলা নির্বাচন অফিসার তারেক আহম্মেদ জানান, বৃহস্পতিবার ৪ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের আবেদন করেছেন। প্রার্থীরা হলেন যশোর-২ (চৌগাছা-ঝিকরগাছা) আসনের জাতীয় পার্টি সমর্থিত হোসেন আলী সরদার, যশোর-৩ (সদর) আসনে জাতীয় পার্টি সমর্থিত মাহবুব আলম বাচ্চু, যশোর-৬ (কেশবপুর) আসনে জাতীয় পার্টি সমর্থিত সাখাওয়াত হোসেন এবং যশোর-৫ (মণিরামপুর) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী কামরুল হাসান বারী।
অপরদিকে যশোরের ৩টি সংসদীয় আসনের প্রার্থী যাচাই বাছাই পর্ব শেষ হয়েছে। এই তিনটি আসনের মধ্যে শুধুমাত্র যশোর-২ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী আলিমুজ্জামান ও এবিএম আহসানুল হকের মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়েছে। এদের মধ্যে এবিএম আহসানুল হক আওয়ামী লীগের মনোনীত না হলেও তিনি মনোনয়ন পত্রে দলীয় পরিচয়ে দিয়েছেন। এজন্য গণপ্রতিনিধিত্ব অধ্যাদেশ অনুযায়ী মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়েছে। অপর প্রার্থী আলিমুজ্জামানের মনোনয়ন পত্রে মোট ভোটারের স্বাক্ষরের ক্ষেত্রে অসঙ্গতি রয়েছে। ফলে তার মনোনয়নপত্র বাতিলা করা হয়েছে। এছাড়াও জেপি (মঞ্জু) বিএম সেলিম রেজার মনোনয়ন পত্রের ঋণ সংক্রান্ত অসঙ্গতি রয়েছে। তবে মনোনয়নপত্র যাচাই বাছায়ের আরও একদিন সময় থাকায় তার মনোনয়ন বাতিলের সিদ্ধান্ত পেন্ডিং রাখা হয়েছে। আজ এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হতে পারে।
বৃহস্পতিবার জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে মনোনয়ন পত্র যাচাই বাছায় করা হয়েছে। মনোনয়ন পত্র যাচাই বাছাই প্রক্রিয়ায় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মোস্তাফিজুর রহমান, ডিডিএলজি জহুরুল হক, জেলা নির্বাচন অফিসার তারেক আহমেমদ ও সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসার। আজ ৪, ৫ ও ৬ সংসদীয় আসনের প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র যাচাই বাছাই করা হবে।
প্রসঙ্গত: যশোরে জাতীয় পার্টির ৫ জন প্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছিলেন। দলের প্রধান হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদ প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়ার পর ৩ জন প্রত্যাহারের আবেদন করেছেন। নির্ধারিত সময়ের আগে প্রার্থীতা প্রত্যাহারের আবেদ দেয়ায় তাদের ব্যাপারে গতকাল কোন সিদ্ধানাত নেয়নি রিটার্নিং অফিসার। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের সর্বশেষ সময় ১৩ ডিসেম্বর।

শেয়ার