যশোরে সমাজসেবা অফিসারের বিরুদ্ধে তদন্ত ছাড়াই প্রতিবেদন দেয়ার অভিযোগ, ডিসির কাছে নালিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ তদন্ত ছাড়াই আদালতে মিথ্যা ও মনগড়া প্রতিবেদন দেয়ায় যশোর সদর উপজেলা সমাজসেবা অফিসারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানানো হয়েছে। শার্শার টেংরালী গ্রামের এক কৃষক জেলা প্রশাসক মোস্তাফিজুর রহমানের কাছে লিখিত অভিযোগ করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান। একই সাথে পুলিশ সুপার, জেলা সমাজসেবা অফিসারসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কাছে অভিযোগ পত্রের অনুলিপি দেয়া হয়েছে।
এতে বলা হয়েছে, ৯ সেপ্টেম্বর সদর উপজেলার ময়না বেগম যশোর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে নির্যাতনসহ কয়েকটি অভিযোগে মামলা করেন। এতে শার্শার টেংরালী গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে মালয়েশিয়া অবস্থানরত রানাসহ তার পরিবারের ৬ জনকে আসামি করে আদালতে মামলা করা হয়। এ মামলাটি তদন্তের জন্য সদর উপজেলা সমাজসেবা অফিসারকে দায়িত্ব দেয়া হয়। কিন্তু তিনি আসামিদের কোন নোটিশ না করে একতরফাভাবে আদালতে প্রতিবেদন দেন। পরবর্তীতে আসামিরা বিষয়টি অবহিত হয়ে তার কাছে গেলে তিনি কোন সদুত্ত দিতে পারেননি। এ অবস্থায় মিথ্যা ও মনগড়া প্রতিবেদন দেয়ার অভিযোগ এনে তার বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসকের কাছে ২ ডিসেম্বর লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। ভুক্তভোগী আব্দুল খালেক জানান, বাদী পক্ষের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে সমাজসেবা অফিসার বানোয়াট তদন্ত রিপোর্ট দিয়েছেন। তিনি পুনরায় নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি করেছেন। তবে এবিষয়ে বক্তব্য নিতে সমাজসেবা অফিসার মাসুদ রানার মুঠোফোনে যোগাযোগ করলেও তিনি ফোন রিসিভি করেননি।

শেয়ার