বিড়াল ধরলেই ৫০০ রুপি

cat
সমাজের কথা ডেস্ক॥ মার্জারকুলের অত্যাচারে প্রাণ ওষ্ঠাগত ভারতের কলকাতার নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজে৷ পায়ে পায়ে ঘোরার সমস্যা তো রয়েইছে, পাশাপাশি বিড়ালের অবাধ বিচরণে ডিপথেরিয়া বা অন্য সংক্রমণ ছাড়ানোর আশঙ্কাও থেকে যাচ্ছে৷ এ দিকে বিড়ালের হাত থেকে মুক্তির যা খরচ, তা দেখে ঘুম ছোটার জোগাড় হাসপাতাল কর্তৃপরে৷
এনআরএস মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল চত্বরে যেখানে ইচ্ছে তাকান, চোখ গিয়ে পড়বে বিড়ালের দিকে৷ এনআরএস হাসপাতালের পেস্ট কন্ট্রোলের দায়িত্বে থাকা সংস্থা বিড়াল পিছু দর হেঁকেছে ৫০০ রুপি৷
সংস্থার সিনিয়র মার্কেটিং এগজিকিউটিভ সুদীপ সাহার জবাব, “বিড়ালের কোনো তি না করে তাকে ধরতে হবে৷ তার ওপর তাকে হাসপাতালের থেকে দূরে, যেখানে খেয়ে পরে বাঁচতে পারবে এমন জায়গায় ছেড়ে আসতে হবে৷ হিসাব করে দেখা হয়েছে, পাঁচশো রুপির কমে তা করা মোটেই সম্ভব নয়৷ তাই আমরা ওই রুপিই কোট করেছি৷”
সূত্রের খবর, হাসপাতালের সদ্যপ্রাক্তন উপাধ্যরে আমলে বিড়াল ধরার ব্যপারে প্রাথমিক কথাবার্তা হলেও, বিড়াল ধরার খরচ হিসাব করতে গিয়ে এখন বেকায়দায় পড়েছেন হাসপাতাল কর্তারা৷
এমন সমস্যায় অবশ্য একা এনআরএস নয়, জর্জরিত শহরের অন্যান্য হাসপাতাল আর মেডিক্যাল কলেজও৷ দীর্ঘদিন ঘরে হাসপাতালকে বিড়ালমুক্ত করতে চেষ্টা চালাচ্ছে আরজিকর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল৷

শেয়ার